তারিখ : ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ডায়ারিয়ার প্রাদূর্ভাব হাসপাতালে স্যালাইন সংকট

ভালুকায় ডায়ারিয়ার প্রাদূর্ভাব হাসপাতালে স্যালাইন সংকট
[ভালুকা ডট কম : ১৪ জুন]  
ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ডায়ারিয়ার প্রার্দূভাব দেখা দিয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে স্যালাইন সংকটে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন আক্রান্ত ডায়রিয়া রোগীরা।
 
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,কয়েকদিন যাবৎ প্রচন্ড গরমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিনই ৫/৬ জন করে ডায়ারিয়া আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। ইতোমধ্যে হাসপাতালে শতাধিক রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। হাসপাতালটিতে ডায়ারিয়া ওয়ার্ড না থাকায় বারান্দায় ও একটি ছোট রুমে বেঞ্চের উপর রোগীদের স্যালাইন দেয়া হচ্ছে।

শনিবার (১৪জুন) সকালে উপজেলার মামারিশপুর গ্রামের সখিনা খাতুন(৮৫),গোপালপুর ত্রিশালের ববিতা(২৫),সাতেঙ্গা গ্রামের শাকির(১০),ভরাডোবা নিশিন্দা গ্রামের ছাহেরা খাতুন(৪০)ও চাঁনপুর গ্রামের আছাতুন্নেছা(৮০)ডায়ারিয়া আক্রান্ত হয়ে ভালুকা হাসপাতালে ভর্তি হন। রোগীরা জানান,ভার্তির পর নার্স এসে একটি স্যালাইন পুশ করে দিয়ে চলে যান। পরে সব ঔষধ আমাদের দোকান থেকে ক্রয় করতে হয়। তা ছাড়া খাবার স্যালাইনসহ অন্যান্য ঔষধপত্র সবই বাহির থেকে ক্রয় করে আনতে হচ্ছে। হাসপাতালের  টয়লেটটি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে রয়েছে দীর্ঘদিন যাবৎ ।

আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার(আরএমও) ডা.রফিকুল ইসলাম স্যালইন সংকটের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এক মাসে শতাধিক ডায়ারিয়ার রোগী হাসপাতলে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। প্রয়োজনীয় জায়গার অভাবে ছোট একটি রুমে ও বারান্দায় ডায়ারিয়ার রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। টয়লেট ফ্যান ও অন্যান্য সমস্যার বিষয়ে বার বার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা(টিএইচএ) কে লিখিত ভাবে জানানোর পরও কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই