তারিখ : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বিশ্ব ইজতেমার ৫২তম জমায়েত শেষ

বিশ্ব ইজতেমার ৫২তম জমায়েত শেষ
[ভালুকা ডট কম : ২২ জানুয়ারী]
রোববার আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে ৫২তম বিশ্ব ইজতেমা। সমাজ, জাতি, দেশ সর্বোপরি বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও কল্যান কামনা করা হয় মোনাজাতে।দিল্লী মারকাজ ও বিশ্ব তাবলীগ জামায়াতের শীর্ষস্থানীয় আমীর হযরত মাওলানা  মোহাম্মদ সা’দ দ্বিতীয় পর্বের আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন। সকাল ১১ টা ১১ মিনিট থেকে শুরু হওয়া মোনাজাত চলে ১১টা ৪৩ মিনিট পর্যন্ত। প্রথমে আরবি পরে উর্দুতে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

আমিন আমিন ধ্বনি॥
অবেগী ভঙ্গিতে মোনাজাতের পুরো সময় ধরে মুসল্লীদের আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে উঠে ইজতমা ময়দান এবং এর আশ পাশের এলাকা। মোনাজাতের আগেও মানুষের যাত্রা ছিল ইজতেমা ময়দানের দিকে। যখনই মোনাজাত শুরু হয় তখনই যে যেখানে ছিল সেখানেই দাঁড়িয়ে বা বসে মোনাজাতে শরীক হয়েছেন।

বিস্তৃতি॥
মোনাজাতে শরিক হতে রোববার সকাল থেকেই মুসল্লীদের আনাগোনা বাড়তে থাকে। দলে দেল যোগ দিতে শুরু কওে ইজতেমা ময়দানের দিকে। ময়দানের পূর্বে টঙ্গী বিসিক শিল্প নগরী ও পশ্চিমে আশুলিয়া,উত্তরে টঙ্গী কলেজ গেট,দক্ষিণে উত্তরা এয়ারপোর্ট পর্যন্ত অন্তত: ১০ থেকে ১২ বর্গ কিলোমিটার এলাকা বিস্তৃত নারী পুরুষের বিশাল জনসমুদ্রে  পরিণত হয়।

২০ লাখ মুসল্লী॥
দেশ বিদেশী তাবলীগ অনুসারীসহ প্রায় ২০ লাখ মুসল্লি আখেরি মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে প্রথম পর্বের চেয়ে দ্বিতীয় পর্বের আখেরী মোনাজাতে  মুসল্লি কম হয়েছে।

বয়ান॥
মোনাজাতের পূর্বে বয়ান করেন  দিল্লীর হযরত মাওলানা মোহাম্মদ সা’দ। বাংলায় বাংলায় তর্জমা করে বাংলাদেশের মাওলানা ওমর ফারুক।

আগামী পর্ব॥
আগামী বছর তথা ২০১৮সালের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমা শূরু হবে ১২জানুয়ারী। ১৪ জানুয়ারী আখেরী মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে প্রথম পর্ব শেষ হবে। এরপর চারদিন বিরতি দিয়ে ১৯ জানুয়ারী দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে এবং ২১ জানুয়ারী সমাপ্তি ঘটবে।এবারের বিশ্ব ইজতেমার উভয় পর্বে ১০মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মোনাজাত শেষ হওয়ার পর সড়কে তীব্র যানজট গাড়ি সংকট অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের কারনে পথে পথে মুসল্লির দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

মোনাজাত॥
মোনাজাতে মাওলানা সা’দ দোয়া করেন করেন, হে আল্লাহ ,আমাদের  ক্ষমা কর,সকল নেক চাহিদা পূরণ করে দাও। হে রাহমানুর রাহীম আমাদের ওপর রহম করো। আমাদেরকে রোগ-ব্যাধি থেকে মুক্তি দাও। আমাদের ওপর দয়া করো যেভাবে তুমি তোমার নেক বান্দাদের ওপর রহম করেছ। হে আল্লাহ, আমাদের পরিপূর্ণ ঈমান দাও। তোমার আজাব থেকে পরিত্রাণ দিয়ে জান্নাত নসিব করো। জাহান্নামের আগুন আমাদের জন্য হারাম করে দাও। হে আল্লাহ বিশ্বের প্রতিটি মুসলমানের অন্তরে তার উম্মাহর অন্য মুসলিম ভাইদের প্রতি মহব্বত পয়দা কর, হে আল্লাহ তুমিইতো রোগ-বালা পয়দা কর আবার তুমি তার শেফা দান কর, তুমি সকলের শেফা দান করে দাও। তুমি তো ক্ষমাশীল, তোমার কাছেই আমরা ক্ষমা চাইব। দ্বীনের উপর আমাদের চলা সহজ করে দাও। হে আল্লাহ, তুমি আমাদের ওপর সন্তুষ্ট হয়ে যাও। দুনিয়ার সকল বালা-মসিবত থেকে আমাদের হেফাজত করো। নবীওয়ালা জিন্দেগী আমাদের নসীব করো। ইজতেমাকে কবুল করো। ইজতেমার আয়োজনে যারা শ্রম দিয়েছে তাদের কবুল করো। যারা তোমার কাছে হাত তুলেছে সকলকে তুমি কবুল করো।

ভিআইপিদের মোনাজাতে অংশগ্রহণ ॥
গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র মো. আসাদুর রহমান কিরন, মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।

মুসল্লিদের দূর্ভোগ ॥
আখেরি মোনাজাত শেষ হওয়ার পর পর্যাপ্ত বাস-ট্রেন সংকট থাকায় মুসল্লিরা চরম দুর্ভোগের শিকার হন।  ট্রেনের ভিতরে জায়গা না পেয়ে অনেকেই ছাদে ও দরজা-জানালায় ঝুলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ফিরতে দেখা গেছে। অপরদিকে, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক, আশুলিয়া ও টঙ্গী কালিগঞ্জ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে মুসল্লিদের বিড়ম্বনাও ছিল। গাড়ি না পেয়ে হাজার হাজার বৃদ্ধ, শিশু-কিশোর ও মহিলা মাইলের পর মাইল হেঁটে যানবাহনে উঠেছেন।

দুর্ভোগ কমাতে॥
১৯৬৭ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা নিয়মিত অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে ১৯৯৬ সালে একই বছর দুইবার বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। স্থান সঙ্কুলান না হওয়ায় এবং মুসল্লীদের চাপ ও দুর্ভোগ কমাতে ২০১১ সাল থেকে দুই পর্বে ইজতেমার আয়োজন করা হচ্ছে।

বিদেশী মেহমান॥
প্রথম পর্বেও ইজতেমা শুরু হয় গত ১৩ জানুয়ারি। চলে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। চারদিন বিরতি দিয়ে ২০ জানুয়ারি শুরু দ্বিতীয় পর্ব। দ্বিতীয় পর্বেও ইজতেমায় অংশ নেয় ৯৮টি দেশ থেকে মোট ১ হাজার ৯২১ জন। গাজীপুর জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ইজতেমা কমিটির সন্তোষ প্রকাশ॥
ইজতেমা ময়দানের মুরব্বী প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দিন বলেন, দ্বিতীয় পর্বের আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিষে শেষ হয়েছে এবারের ৫২তম বিশ্ব ইজতেমা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে মুসল্লি¬দের আসতে এবং ময়দানের সার্বিক নিরাপত্তায় আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের ভূমিকায় সরকারের প্রতি ইজতেমা আয়োজক কমিটি সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি আরো বলেন, আগামী ২০১৮ সালের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমা ১২ই জানুয়ারী শুরু হবে। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ইসলামীক বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই