তারিখ : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

হালুয়াঘাটের বৃক্ষ প্রেমিক মাঝহারুল

হালুয়াঘাটের  বৃক্ষ প্রেমিক মাঝহারুল
[ভালুকা ডট কম : ১৪ মার্চ]
ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী উপজেলা হালুয়াঘাট। রয়েছে লাল ক্ষারীয় মাটির গারো পাহাড়। যেখানে কোন ফসল বা ফলজ বৃক্ষ উৎপাদনের কথা চিন্তাই করা যায়না সেই পাহাড়ের ক্ষারীয় লাল মাটিতে চাষ করেছেন এলাচি বাগান। এলাচি এখন কৃষক মাঝহারুলের স্বপ্ন নয়। বাস্তব হয়ে দাড়িয়েছে। কয়েকশত এলাচি গাছ রোপন করে তার গড়ে ওঠা এলাচি গাছের বাগান কৃষি বিভাগ সহ সকলকেই লাগিয়েছে চমক।

সরেজমিনে হালুয়াঘাটের ১ নং ভুবনকুড়া ইউনিয়নের কড়ইতলীর কোচ পাড়ায় এই বৃক্ষ প্রেমিক চাষী মাজহারুলের এলাচি বাগান পরিদর্শন করতে গিয়ে দেখা যায়, চাষী মাঝহারুলের এলাচি বাগানের পাশাপাশি শত জাতের ফলজ বৃক্ষের সমাহার। একই সাথে তিনি গারো পাহাড়ের ভিতর সৌদিয়ান জাতের খেজুরও চাষ করেছেন।  শুধু সৌদিয়ান খেজুর নয়, কমলা ও মাল্টার পাশাপাশি মোট আড়াই একর জমির উপড় প্রাথমিক উদ্যোগ সরুপ চাষ করেছেন ড্রাগন, এলাচি, সফেদা,বিভিন্ন প্রজাতির আম, তেতুল, আপেল, আঙ্গুর, আমলকি, পেয়ারা।

২০১২ সালে হাতে নিয়েছিলেন ব্যাতিক্রমধর্মী এই খামার করার। আর ধীরে ধীরে তা এগিয়ে নিয়ে  চলেছেন। ইতিমধ্যে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তার পদাচরণ ঘটেছে এই ব্যাতিক্রমধর্মী চাষকৃত খামারীর বাগানে। গত ১৪ ডিসেম্বর উক্ত খামারির বাগান পরিদর্শন করেছেন কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক অমিতাভ দাস সহ হালুয়াঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুলতান আহমেদ। সেইসাথে কৃষক মাজহারুল ইসলামের ব্যাতিক্রমধর্মী উদ্যোগের সফলতায় এলাকায় পড়েছে ব্যাপক সাড়া।

মোট ২ একর ৫০ শতাংশ জমির উপর হাতে নেওয়া উক্ত কৃষকের স্বপ্ন তা আদৌ সফল হবে কিনা এ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার  সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে কথা হয় চাষী মাজহারুল ইসলামের সাথে। তিনি জানিয়েছেন সমপূর্ন ব্যাতিক্রমধর্মী কিছু উদ্যোগের কথা। যা বাস্তবায়ন করতে তিনি রয়েছেন বদ্ধ পরিকর। তিনি জানান এখানকার মাটি এলাচি চাষের জন্য উপযোগী। কৃষি বিভাগও বলছে একই কথা।

হালুয়াঘাট কৃষি অফিসের কর্মকর্তা সুলতান আহমেদ জানান, চাষী মাঝহারুল একজন বৃক্ষ প্রেমিক মানুষ। সে তার নিজস্ব মেধা ও বুদ্ধি খাটিয়েই এইসব বাগান গড়ে তুলেছেন।চাষী জানান, ছোটকাল থেকেই গাছের প্রতি তার আলাদা নেশা ছিল। এছাড়া সৌদি আরব সহ বিভিন্ন দেশেও তিনি গিয়েছেন। সেখান থেকেই অনুপ্রাণীত হয়ে এই উদ্যোগ নিয়েছেন। তার বিশ্বাস তিনি সফল হবেন। গাছের বিষয়ে একাডেমিক কোন দক্ষতা অর্জন করেননি তিনি। সম্পূর্ণ নিজের মেধাতেই খামার গড়ে তুলতে চান এই কৃষক।

এই বিষয়ে হালুয়াঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুলতান আহমেদ বলেন, আমরা ইতিমধ্যে চাষী মাজহারুলের খামার পরিদর্শন করেছি এবং তাকে সহযোগিতা করে চলছি। এলাচি  চাষের সফলতা আসবে কিনা এমন প্রশ্নে এই কৃষি কর্মকর্তা বলেন, এখানেও এলাচি চাষে সফল হবার সম্ভাবনা রয়েছে। এখানকার মাটিও উপযোগী। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

লাইফস্টাইল বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই