তারিখ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় এক নারীর স্বামীর দাবীদার জমজ দুই ভাই

ভালুকায় এক নারীর স্বামীর দাবীদার জমজ দুই ভাই
[ভালুকা ডট কম : ২১ জুলাই]
ভালুকায় প্রতারণার মাধ্যমে এক নারীর স্বামীর দাবীদার জমজ দুই ভাই। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৬নং সদর ভালুকা ইউনিয়নে ৯নং ওয়ার্ড বাশিল গ্রামে। এ ঘটনায় প্রতারণার শিকার ওই নারী ২১ জুলাই শনিবার রাতে ভালুকা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার ৬নং সদর ভালুকা ইউনিয়নের বাশিল গ্রামের মৃত আছমত আলীর ছেলে মালয়শিয়া প্রবাসি হান্নান মিয়ার সাথে পার্শবর্তী গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের তালতলি গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ এর অনার্স পুড়ায়া কন্যা তাসনিয়া জাহান রিপার গত ১২ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখে ৪ লক্ষ টাকা দেনমোহর ধার্য করিয়া নিকাহ্ রেজিস্ট্রি কাবিন মূলে বিয়ে হয়। বিয়ের নিকাহ্ রেজিস্ট্রারে প্রতারণা করে হান্নানের স্থলে মান্নান লিখা হয়। বিয়ে পরানোর সময় হান্নান নাম উল্লেখ করে বিয়ে কার্য সম্পন্ন হয়। বিয়ের এক সপ্তাহ পর ২০ মার্চ রিপার স্বামী হান্নান মিয়া মালয়শিয়া চলে যায়। বিদেশ চলে যাওয়ার পর হান্নানের সহোদর জমজ ছোট ভাই মান্নান রিপাকে বিভিন্ন ভাবে কু-প্রস্তাব দেয়। কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ঘরের মধ্যে আটকিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। রিপার ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে মান্নান পালিয়ে যায়। ঘটনাটি রিপা তার বড় বোন রুমানাকে জানালে রুমানা এসে রিপাকে পিত্রালয়ে নিয়ে যায়। এঘটনায় রিপা বাদী হয়ে স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করিলে চেয়ারম্যান উভয় পক্ষকে উপস্থিত হওয়ার জন্য ২১ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় নোটিশ করেন। মান্নান চেয়ারম্যানের ডাকে উপস্থিত না হয়ে উল্টো  বাদীকে হুমকি প্রদান করেন।

মালয়শিয়া থেকে মোবাইল ফোনে হান্নান জানান, আমার স্ত্রীকে উত্তপ্ত করেছে একথাটি আমার স্ত্রী রিপা আমাকে জানিয়েছে। নিকাহ্ রেজিস্ট্রারে হান্নানের স্থলে কেন মান্নান লেখা হয়েছে এ কথাটি জানতে চাইলে তিনি জানান আমার ভোটার আইডি কার্ড না থাকায় মান্নানের আইডি কার্ড ও পার্সপোর্ট দিয়ে আমি মালয়েশিয়া চলে আসি। এখান থেকে গিয়ে আমি রিপাকে বিয়ে করি। রিপাকে আমার সাথে মালয়শিয়া নিয়ে আসবো বলে নিকাহ্ রেজিস্ট্রারে মান্নান লিখা হয়।

অভিযুক্ত মান্নান জানান, নিকাহ্ রেজিস্ট্রী কাবিন মূলে রিপা আমার স্ত্রী আমি আমার স্ত্রীর কাছে গিয়েছি। এতে কারো কিছু আসে যায় না।=তাসনিয়া জাহান রিপা জানান, হান্নানের সাথে বিয়ে হওয়ার পর আমরা সুখে শান্তিতে ঘরসংসার করতে থাকি। আমার স্বামীর ছুটি শেষ হয়ে যাওয়ায় সে আবার বিদেশ চলে যায়। বিদেশ চলে যাওয়ার পর থেকে আমার দেবর মান্নান আমাকে তার সাথে মেলামেশার জন্য কু-প্রস্তাব দিতে থাকে বিষয়টি আমার শ্বাশুরি আমেনাকে জানালে তিনি বলেন এটা কোন বিষয়না। ঈদের পর মান্নান আমাকে ঘরের মধ্যে আটকিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে আমার ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে মান্নান পালিয়ে যায়।

৬নং ভালুকা ইউনিয়নের কাজী ফরিদ আহাম্মেদ জানান, আমাকে যে ভাবে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে আমি ওই ভাবেই নিকাহ্ রেজিস্ট্রী করেছি। স্থানীয় ইউ.পি মেম্বার ফারুক মিয়া জানান, হান্নানের প্রথম স্ত্রী মান্নানের যন্ত্রনায় চলে গেছে। ওই তথ্য গোপন করে পুনরায় এই মেয়েকে বিয়ে করেন।

স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যান শিহাব আমিন খান জানান, মেয়ে আমার কাছে বিচার প্রার্থী হলে আমি অভিযুক্ত মান্নানকে আমার পরিষদে ডাকি। কিন্তু আমার ডাকে সে উপস্থিত হয়নি। তাই ওই মেয়েটিকে ওসি সাহেবের সাথে কথা বলে থানায় পাঠিয়ে দিয়েছি।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার পিপিএম (বার) জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।#






সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই