তারিখ : ২২ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁয় মাঠে জলাবদ্ধতা,বন্ধ খেলাধুলা

নওগাঁয় মাঠে জলাবদ্ধতা,বন্ধ খেলাধুলা
[ভালুকা ডট কম : ৩১ জুলাই]
কথিত আছে ক্রিড়াই শক্তি ক্রিড়াই বল কিন্তু খেলার মাঠ যদি বর্ষা মৌসুমে পানিতে থৈ থৈ করে তখন? দেখলে বিশ্বাসই হবে না এটা নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী ডাক বাংলো মাঠ। সাকিব, তামিম, মুশফিক, রুবেল, সৌম্যরা যখন দেশ মাতিয়ে রাখছেন তখন বর্ষা মৌসুমে পানির নিচে ডুবে থাকে এই মাঠ আর পানিতে বসবাস করে নানা প্রজাতির মাছ ও পোকা-মাড়ক।

সূত্রে জানা, বছরের বেশির ভাগ সময়ই মাঠ স্যাঁতসেঁতে হয়ে থাকে যার কারণে মাঠে নিয়মিত খেলা কিংবা অনুশীলন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। যখন খেলার উপযুক্ত থাকে  তখন উপজেলা পর্যায়ের ক্রিকেট, ফুটবল, হ্যান্ডবলসহ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। তাই মাঠের এ অবস্থার জন্য খেলোয়াড়দের বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে। নিয়মিত খেলতে না পারায় ক্ষোভ জানিয়েছেন অনেকেই। সামান্য বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। বন্ধ হয়ে যায় সব খেলা। উপজেলা শহরের একমাত্র ঐতিহ্যবাহী মাঠটি বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। উপজেলার মধ্যে এত বড় জনগুরুত্বপূর্ণ মাঠ বিরল। মাঠটি অনেক ঐতিহাসিক স্বাক্ষর বহন করে চলেছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, একাধিক প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীপরিষদের অনেক সদস্যসহ সব রাজনৈতিক দলের নেতার পদার্পণ ঘটেছে এই মাঠে। উপজেলার প্রধান ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয় এখানে। এ ছাড়া বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন মেলা, বড় ধরনের সভা, সমাবেশ ও নিয়মিত সব ধরনের খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয় এই মাঠে। অথচ এ মাঠটি যেন এখন অভিভাবক শূন্য।

এই মাঠে পানি নিষ্কাাশনের কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় অল্প বৃষ্টি হলেই পানি জমে। আর বর্ষা মৌসুমে থাকে হাঁটু পানি। গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে পুরো মাঠটি পানিতে ডুবে গেছে। যার ফলে খেলাপ্রেমীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মাঠ সংলগ্ন উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ১টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ২টি কিন্ডার গার্ডেন স্কুল থাকায় প্রতিদিন শত শত ছাত্র-ছাত্রীর সমাগোম হয় এই মাঠে। হাঁটু পানিতে ডুবে থাকায় কোমলমতি শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা করতে পরছে না। কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় নিয়মিত খেলাধুলা করতে না পারায় শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

স্থানীয়রা জানান যুব সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ এর হাত থেকে রক্ষায় খেলাধুলার কোন বিকল্প নেই। খেলাধুলা চর্চায় যুব সমাজ ব্যস্ত থাকলে সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও মাদকের ছোবল থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। যত বেশি ক্রীড়ার চর্চা হবে তত বেশি যুব সমাজ মাদক থেকে দুরে সরে যাবে। যে জাতি খেলাধুলায় যত উন্নত তারা পৃথিবীতে তত বেশি বিকশিত। খেলাধুলা যুব সমাজকে অসামাজিক কার্যকলাপ থেকে দুরে রেখে সুন্দর সমাজ গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। কিন্তু এই মাঠটি দেখলে খুব কষ্ট হয়। মাঠ থেকেও খেলাধুলা করতে পারছে না আমাদের সন্তানরা।

স্থানীয় নাজমুল, নওশাদ, মুরাদ, জুয়েল ও দিপু বলেন আমাদের দাবী অবহেলিত এই মাঠটিতে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগুক। অচিরেই আধুনিক পরিকল্পনার মাধ্যমে ড্রেনেজ ব্যবস্থা নির্মাণ করে মাঠটি শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর জন্য খেলার উপযুক্ত করে দেওয়া হোক। আর এর জন্য স্থানীয় প্রশাসনসহ সরকারের দৃষ্টি আর্কষন করছি আমরা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসেন পারভেজ জানান, মাঠের জলাবদ্ধতার সমস্যা সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হচ্ছে। মাঠের এহেন অবস্থার কথা উপর মহলকে জানানো হয়েছে আশা রাখি অল্প দিনের মধ্যেই মাঠটিতে সংস্কারের কাজ শুরু করা হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

খেলাধুলা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই