তারিখ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সান্তাহারে ১৩ কিলোমিটার সড়ক দেড় যুগ ধরে সংস্কার হয়নি

সান্তাহারে ১৩ কিলোমিটার সড়ক দেড় যুগ ধরে সংস্কার হয়নি
[ভালুকা ডট কম : ০২ আগস্ট]
বগুড়ার সান্তাহারের সাইলো সড়ক থেকে কদমা হয়ে আদমদীঘি রেলস্টেশন পর্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ন্য পাকা সড়কের বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে শতশত গর্তের সৃষ্টি হয়ে পানি জমে থাকায় বেহাল দশায় পরিনিত হয়েছে। ফলে চলতি বর্ষা মৌসুমে যানবাহনসহ জনসাধারনরেন চলাচলে মারাত্বক ঝুঁকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এলাকাবাসী জরুরী ভিক্তিতে এই গুরুত্বপূর্ণ্য সড়কটি মেরামত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, বগুড়ার সান্তাহার সাইলো সড়ক থেকে দমদমা, কদমা ও মন্ডবপুর হয়ে আদমদীঘি রেলগেট পর্যন্ত প্রায় ১৩কিলোমিটার রাস্তা প্রায় ১৮বছর পূর্বে পাকা করন করা হয়। এই গুরুত্বপূর্ন্য সড়ক দিয়ে প্রতিদিন যানবাহনের পাশাপাশি ২৪/২৫টি  গ্রামের হাজার হাজার মানুষ উপজেলা সদর ও সান্তাহার পৌর শহর দিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করে থাকেন। এই সড়কটি পাকাকরণের পর সংস্কার কাজ করা হলেও কিছুদিন পার হতেই আবারও বিভিন্ন অংশের পাকা চটে খানা খন্দকে পরিণত হয়। গত কয়েক বছর যাবত সড়কটির কোন সংস্কার কাজ না করায় বর্তমানে বিভিন্ন স্থানে সড়কের কাপেটিং উঠে ছোট বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়ে বেহাল দশায় পরিনিত হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে এসব ছোট বড় গর্ত পরিপূর্ণ্য হয়ে থাকায় যেকোন মুহূর্তে দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।  এছাড়া সড়কের কিছু অংশে মাটি ও বালু এমন ভাবে থাকে দেখলে বোঝার উপায় নেই যে এটা পাকা সড়ক।

করজবাড়ী গ্রামের চার্জার চালিত অটো রিক্সা চালক জাহিদুল ইসলাম জানান, কদমা টু সান্তাহার যেতে আগের থেকে এখন দ্বিগুণ সময় লাগে। দমদমা গ্রামের ব্যাবসায়ী মেহেবুব আলম বলেন, এলাকাবাসি হাট বাজারে ধান চাল তরিতরকারি বহনে ও যাতায়াতে মারাত্বক ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। প্রায় সময় দূর্ঘটনার মূখোমুখি হতে হচ্ছে পথচারীদের। দমদমা গ্রামের তরুন সমাজ সেবক জামিল হোসেন জানান, এই সড়কটি সংস্কার করা হলে গাড়ী চালক,ছাত্র-ছাত্রীসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষের কষ্ট লাঘব হবে। সড়কটির করুন দশার কারনে মূমূর্ষ রোগি বহনে কঠিন হয়ে পড়েন এলাকাবসী। এমনকি ঝুঁকিপূর্ণ্য সড়কের কারনে শহর থেকে ভালো ডাক্তারও আসতে চায়না।

উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানান, আদমদীঘি সদর থেকে মন্ডবপুর কদমা ও দমদমা হয়ে সান্তাহার সাইলো রাস্তা পর্যন্ত ওই সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের হওয়ায় সংস্কার করা সম্ভব হচ্ছেনা।#






সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই