তারিখ : ২৩ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা

হজ্বে থাকা অবস্থায় নওগাঁ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা
[ভালুকা ডট কম : ০৬ সেপ্টেম্বর]
ঘটনাস্থলে উপস্থিত না থেকেও সৌদি আরবে হজ্বে থাকা অবস্থায় নওগাঁ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিনের নামে নাশকতা মামলা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে।

গত ০২/০৯/১৮ ইং তারিখ রাত আড়াইটার দিকে এসআই আব্দুল মান্নান-২ বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন সদর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মৃত-আব্দুস সামাদের ছেলে। তিনি গত ২২/০৭/১৮ ইং তারিখে হজ্ব পালনের উদ্যেশ্যে সৌদি আরবে গমণ করেন বলে জানা গেছে। আর পুলিশের এমন ভূলের মামলায় জনসাধারনের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এতে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ০২/০৯/১৮ ইং তারিখে রাত দেড়টার দিকে শহরের চকমুক্তার এলাকায় রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপ নাশকতা ও ধ্বংসাত্বক কাজ সংগঠনের লক্ষে গোপন ৪০/৪৫ জন জামাত শিবিরের নেতা কর্মীরা সমাবেত হয়ে বৈঠক করছিল। গোপন সংবাদে সদর থানা পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন এসআই আব্দুল মান্নান-১, এসআই আব্দুল মান্নান-২, এসআই জালাল হোসেন, এএসআই সন্তোষ কুমার রায়, এএসআই আইনুল হক, এএসআই আব্দুল মালেক, কনস্টেবল সুকুমার ও সাখাওয়াত হোসেন।

এসময় জামাত শিবিরের নেতা কর্মীরা পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ ইব্রাহিম হোসেন (৩১) ও আনোয়ার হোসেন মোল্লা (৪৫) নামে দুইজনকে আটক করলেও অন্য সবাই পালিয়ে যায়। অন্যদের মধ্যে মামলার ৩ নম্বর আসামী সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন সহ অজ্ঞাত ৪০/৪৫ জন ব্যক্তি নাশকতা মূলক কার্যক্রম অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তুতি মূলক মিটিংয়ে উপস্থিত ছিল বলে উল্লেখ করা হয়।

পলাতক প্রত্যেক আসামীদের কাঁধে ব্যাগ ঝোলানো ছিল। যাহাতে অন্তঘাত মূলক কর্মকান্ড ঘটানোর সরঞ্জামাদি ছিল বলে মামলার স্বাক্ষী ও আটককৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়। আটককৃতরা আরো জানায় পলাতক আসামীরা জামাত শিবিরের বিভিন্ন শাখায় সক্রীয় নেতাকর্মী। নওগাঁ শহরের বিভিন্ন এলাকায় ধ্বংসাত্বক কর্মকান্ড চালিয়ে জনসাধারনের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির লক্ষ্যে জমায়েত হয়েছিল।

কিন্তু মামলার মামলার ৩ নম্বর আসামী সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন গত ২২/০৭/১৮ ইং তারিখে পবিত্র হজ্ব পালনের উদ্যেশ্যে সৌদি আরবে গমণ করেন এবং ০৫/০৯/১৮ ইং (বুধবার) ভোরে বাংলাদেশে ল্যান্ড করেছেন বলে জানা গেছে।

মামলার বাদী এসআই আব্দুল মান্নান-২ বলেন, যাদেরকে আটক করা হয়েছে তাদের জবানমন্দিতে তার নাম দেয়া হয়েছে। মামলার আয়ু বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিবেন।নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই বলেন, যদি এধরনের ঘটনা হয়ে থাকে তাহলে তদন্ত করে এজাহার থেকে নাম বাদ দেয়া হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

রাজনীতি বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই