তারিখ : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

৫ দাবিতে বিএনপি-যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়া এক মঞ্চে

৫ দাবিতে বিএনপি-যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়া এক মঞ্চে
[ভালুকা ডট কম : ০৮ অক্টোবর]
সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তিসহ পাঁচ দফা দাবিতে এক মঞ্চে থেকে আগামী দিনে আন্দোলন করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি, যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়া। দাবি আদায়ের লক্ষ্যে এখন থেকে অভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে দলগুলো। এর মধ্য দিয়ে আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের আনুষ্ঠানিক সূচনা ঘটছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

গতকাল রোববার রাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য খন্দকার মোশাররফের বাসভবনে অনুষ্ঠিত বিএনপি, যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার নেতাদের এক বৈঠকে এ বিষয়ে ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর ঐক্য প্রক্রিয়ার নাগরিক সমাবেশে যোগ দিয়েছিলেন যুক্তফ্রন্ট ও বিএনপির নেতারা। ওই সময় থেকেই বৃহত্তর ঐক্যের বিষয়টি সামনে আসে। এরপর বিভিন্ন সময় নেতাদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সর্বশেষ রোববারের বৈঠকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নেতারা।

বৈঠক শেষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব সাংবাদিকদের জানান, যুক্তফ্রন্ট, ঐক্য প্রক্রিয়া ও বিএনপির নেতৃবৃন্দ একসঙ্গে আলোচনা করেছি। উদ্দেশ্য একটাই, বর্তমান স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে এক মঞ্চে দাঁড়ানো। একসঙ্গে আন্দোলন করার ব্যাপারে আজকে (রোববার) নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন থেকে আমরা ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করব।

সভায় গৃহীত পাঁচ দফা দাবি প্রসঙ্গে আ স ম রব বলেন, নির্দলীয় সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন, তফসিলের আগে সংসদ ভেঙে দেওয়া, প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভা ভেঙে দেওয়া, ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতাসহ সেনাবাহিনী মোতায়েন এবং ইভিএম বাতিল করতে হবে।

গতকালের বৈঠক শেষে আ স ম আব্দুর রব বৃহত্তর ঐক্যপ্রক্রিয়ার সাথে জামায়াতের যুক্ত থাকার প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, আমরা বিএনপির সাথে ঐক্য করছি। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সব দল এখানে থাকতে পারবে। বিএনপির সঙ্গে আলাদাভাবে কারা থাকছে, তা তাদের বিবেচনার বিষয় নয়। বাংলাদেশের জনগণ চায় আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বর্তমান স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করি।

এসময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেছেন, দাবি আদায়ে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলা হবে। দাবি আদায় করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সবাই মিলে আন্দোলন করা হবে। পাঁচ দফার মধ্যেই খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয় আছে।

গতকাল বিকেলে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘ভোটের অধিকারের দাবিতে’ এক মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে ড. কামাল হোসেন বলেন, তাদের ঐক্য প্রক্রিয়ায় জনগণের বিপুল সাড়া পাচ্ছেন। এই দেশটা কোনো ব্যক্তির না, কোনো দলের না, কোনো পরিবারের না; আমাদের সকলের। অতীতের মতো এবারও আমাদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন সফল হবে। ঐক্যের শক্তি নিয়ে জনগণের অধিকার নিশ্চিত করব।

দেশে লুটপাট চলছে উল্লেখ করে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার এ নেতা বলেন, দেশ জনগণের মালিকানায় না থাকলে পাইকারিভাবে লুটপাট হয়, জনগণের সম্পত্তি পাচার হয়। হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে লুটপাট হচ্ছে। স্বাধীনতার প্রতিশ্রুতি পালন হচ্ছে না। জনগণকে দেশের মালিকানা ভোগ করতে হলে মালিকের ভূমিকা অবশ্যই রাখতে হবে। সে ভূমিকা রাখার জন্যই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য প্রসঙ্গে সাবেক বিডিআর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল (অব:)  আ ল ম ফজলুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের জনগণের রাজনৈতিক আকাঙ্ক্ষা হচ্ছে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন। জনগণ নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের সুযোগ চায়। সেদিক থেকে দেখলে বিরোধীমহলে একটি বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যজোট একটি ইতিবাচক পরিবর্তনের অনুঘটক হতে পারে। ‘জনগণের রাজনৈতিক আকাঙ্ক্ষা হচ্ছে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন’#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

রাজনীতি বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৪৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই