তারিখ : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে জমি সংক্রান্ত জের মা ও ছেলেকে প্রাণনাশের হুমকি

নান্দাইলে জমি সংক্রান্ত জের মা ও ছেলেকে প্রাণনাশের হুমকি
[ভালুকা ডট কম : ০৯ নভেম্বর]
ময়মনসিংহের নান্দাইলে জোরপূর্বক জমি দখল, গাছ কর্তন সহ মা-ছেলের উপর অত্যাচার ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার এক গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানাযায়, উপজেলার রাজগাতী ইউনিয়নের কাশিনগর গ্রামের মৃত শহর আলীর বিধবা স্ত্রী আমেনা খাতুন (৮৫) ও তাঁর বড় ছেলে জহুর উদ্দিন (৭০)এর উপর প্রায়শই অত্যাচার-নিপীড়ন চালায় তাঁরই ছোট ভাই রহিম উদ্দিন (৪৫)। রহিম উদ্দিন এলাকার একজন জুয়াড়ো, মাদকসেবী ও দাঙ্গাবাজ প্রকৃতির লোক। রহিম উদ্দিন পুনরায় সম্পত্তির পাওয়ার দাবী তুলে তাঁর মা ও বড় ভাইকে নানাবিধ অত্যাচার এবং বড় ভাইয়ের বাড়ির গাছ সহ ক্ষেতে চাষ আবাদে বাধা প্রদান করে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে আমেনা খাতুন বলেন, আমার ৪ পুত্রকে তাদের অংশীদারিত্ব ভাগ বুঝিয়ে দিয়েছি। কিন্তুু রহিম উদ্দিন সে তার অংশের অর্থ-সম্পদ সব জুয়া খেলে শেষ করে দিয়েছে। এখন আমাদের উপর অত্যচার চালাচ্ছে। আমাকে ও বড়ছেলেকে মারপিট করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। আমি এর কঠিন বিচার চাই। আমার বড় ছেলে জহুর উদ্দিন আমাকে দেখভাল করে।

জহুর উদ্দিন বলেন, এলাকার লোকজনের কাছে বিচার চাইলে তাঁর অত্যাচার আরও বেড়ে যায়। আমাকে তাঁর স্ত্রীকে দিয়ে নারী-নির্যাতন সহ বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা মামলা দিবে বলে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। ফলে কেউ তাঁর বিরুদ্ধে কথা বলতে রাজি নয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. কাইয়ূম বলেন, একাধিকবার বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেছি। কিন্তুু রহিম উদ্দিন ছেলেটি অশৃঙ্খল ধরনের সে কাহারও কথা মানতে রাজি নয়। এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানায় জহুর উদ্দিন বাদী হয়ে একটি সাধারন ডায়েরী নথিভূক্ত করেছে। নান্দাইল মডেল থানার ডায়েরী নং ২৪৪ তারিখ- ০৬/১১/২০১৮ইং।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৭ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই