তারিখ : ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

আরেকবার ক্ষমতায় আসলে দেশকে দারিদ্র্যমুক্ত ঘোষণা করতে পারব- প্রধানমন্ত্রী

আরেকবার ক্ষমতায় আসলে দেশকে দারিদ্র্যমুক্ত ঘোষণা করতে পারব- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
[ভালুকা ডট কম : ১১ নভেম্বর]
উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রাখতে আগামী নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দেশে উন্নয়নের ধারা সূচিত হয়েছে, আমরা মেগা প্রকল্প নিয়েছি, দারিদ্র্য বিমোচনের অঙ্গীকার করেছি। দারিদ্র্য ২১ ভাগে নামিয়ে এনেছি। আরেকবার ক্ষমতায় আসলে আরো চার থেকে পাঁচ ভাগ কমাতে পারব। বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত ঘোষণা করতে পারব। আমরা না থাকলে কেউ করবে না।

আজ (রোববার) দুপুরে গণভবনে যুবলীগের ৪৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির নেতাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। অনুষ্ঠানের শুরুতে শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নেতারা। এ সময়, যুব সমাজের উন্নয়নে সরকারের পদক্ষপ তুলে ধরে সরকার প্রধান।

নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন যাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয় সেটাই আমাদের লক্ষ্য। আমি আশা করব অন্য রাজনৈতিক দলগুলোও নির্বাচনে আসবে। কারণ, একটা রাজনৈতিক দল নির্বাচন না এলে সেই দল শক্তিশালী হয় না। তাই আমরা আশা করি, সব দল আসবে। বাংলাদেশের গণতন্ত্র আরও শক্তিশালী হবে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, যদি ত্যাগের মনোভাব থাকে তাহলে সফল হতে পারবে। যারা রাজনীতি করবে তাদেরকে বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ ও আদর্শ থেকে শিক্ষা নিতে হবে। কী পেলাম, কী পেলাম না সেই হিসাব করবেন না, হিসাব করবেন কতটুকু জনগণকে দিলাম, দিতে পারলাম।

এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রির তৃতীয় দিন আজ। সকাল থেকেই রাজধানীর ধানমন্ডির নির্বাচনী কার্যালয়ে ভীড় করেন সারাদেশ থেকে আসা নেতাকর্মীরা। এ উপলক্ষে কার্যালয় এলাকায় বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।

আজ (রোববার) দুপুরে নড়াইল-২ আসনের জন্য আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্তুজা। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের হাত থেকে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন তিনি। এর আগে, সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচনের তফসিল পেছানো হলে বা পুনঃতফসিল হলে আওয়ামী লীগের আপত্তি নেই। কিন্তু সেটা হতে হবে সবার সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে। নির্বাচন কমিশনকে বাস্তবসম্মত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কারও চাপের মুখে তফসিল পেছানো বা পুনঃতফসিল করা যাবে না। তিনি আরও বলেন, এবার প্রচুর প্রার্থী। এক আসনের বিপরীতেই ১৫-১৬ জন করে প্রার্থী। এটাই হচ্ছে দলের অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্রের সৌন্দর্য। যে কেউ ফরম কিনতে পারেন কিন্তু কেউ দলের বিরুদ্ধে গেলে তাদের আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৪২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই