তারিখ : ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ময়মনসিংহে শহীদ মিন্টু'র ৫০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত

শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু'র ৫০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল
[ভালুকা ডট কম : ২৪ জানুয়ারী]
মিন্টু  আমাদের বীর। তাঁর স্মৃতি রক্ষার্থে জেলা পরিষদ এর অর্থায়নে জেলা স্কুলের পাশেই তাঁর নিহত হওয়ার স্থানে স্থাপনা তৈরি করা হবে। সেখানে নামকরণের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। বাংলার বীরদের জীবনী জেনেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্ম উদ্ধুদ্ধ হবে। আজ শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ময়মনসিংহ মুসলিম ইন্সটিটিউট এর মিলনায়তনে শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু'র ৫০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইউসুফ খান পাঠান।

আলোচনা সভায় বক্তাগন শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টুর আত্মত্যাগের স্মৃতি চারণ করেন। যে গুলিটি শহীদ মিন্টুর বুক ফুঁড়ে থাম ছিদ্র করে বেরিয়ে যায়। সেই থামটি দীর্ঘদিন ওখানে পড়ে থাকার পরও তা সংরক্ষণ করা হয়নি বলে দুঃখ প্রকাশ করেন বক্তাগণ। ৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থানে ময়মনসিংহের প্রথম শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু। ১৯৬৯ সালে যখন সারাদেশ পাকিস্তান সরকারের অরাজকতায় নিমজ্জিত। অন্যদিকে সারাদেশ বাংলার দামাল ছেলেদের স্লোগানে উত্তাল।  ঠিক তখনি ময়মনসিংহে নাসিরাবাদ কলেজ এর ছাত্র আলমগীর মনসুর মিন্টুকে মিছিলের মাঝখানে গুলি করা হয় জেলা স্কুলের সামনে।  গুলিটি মিন্টুর বুকের মাঝ বরাবর লাগে। বুক ছিদ্র হয়ে রাস্তায় থামের ভেতর দিয়ে গুলিটি বের হয়ে যায়। তিনি শহীদ হোন ৷ পরবর্তীতে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও রফিক উদ্দিন ভুইয়া এর সহযোগিতায় প্রিন্সিপাল মতিউর রহমান আলমগীর মনসুর (মিন্টু) মেমোরিয়াল কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর এ অবদানের জন্য শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান উপদেষ্টা মোঃ উসমান গণি সুমন এর উদ্যোগে ২৪ জানুয়ারিকে মিন্টু দিবস বলে ঘোষণা দেয়া হয়।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ময়মনসিংহ জেলা শাখা সহসভাপতি পীযুষ কান্তি সরকার, বাংলাদেশ এফপিএবি এর মহাসচিব মোঃ মিজানুর রহমান খান লিটন, সাবেক কোম্পানি কমান্ডার ও ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা এম, এ কাসেম, বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু'র ছোট ভাই হুমায়ুন মনসুর।

প্রধান আলোচক ছিলেন আলমগীর মনসুর মিন্টু (মিন্টু) মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ নীহার রঞ্জন রায়। সঞ্চালনায় ছিলেন নন্দিত উপস্থাপক ও সংস্কৃতিকর্মী সারওয়ার জাহান। সভাপতিত্ব করেন শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান উপদেষ্টা মোঃ উসমান গণি সুমন। উপস্থিত ছিলেন শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টু  স্মৃতি ফাউন্ডেশন এর সভাপতি  মোঃ সাজিদুল ইসলাম আবীর,  সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু ইমরানসহ অন্যান্য সদস্য বৃন্দ।





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

শোক সংবাদ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই