তারিখ : ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নজিপুরে সওজ এর যায়গা বেদখল,সড়কে ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহন

নজিপুরে সওজ এর যায়গা বেদখল,সড়কে ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহন সহ পথচারী
[ভালুকা ডট কম : ২৬ জানুয়ারী]
দেশের উদ্বৃত্ত ধান উৎপাদন এলাকা হিসাবে পরিচিত নওগাঁ জেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন উপজেলা পত্নীতলা উপজেলা সদরের নজিপুরে সড়ক ও জনপথের (সওজ) যায়গা বেআইনি ভাবে দখল হওয়ায় সংকির্ন হয়ে এসেছে গোল চত্বর এলাকা সহ আঞ্চলিক মহাসড়ক। প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন নজরদারী না থাকায় এসব অবৈধ স্থাপনা ও দোকানপাটের সংখ্যা দিনদিন বেড়েই চলেছে।

সরজমিনে দেখাগেছে, নজিপুর বাসস্ট্যান্ড গোল চত্বর এলাকা থেকে ধামইরহাট সড়কের বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত, নওগাঁ সড়কের কাঁটাবাড়ি মোড় পর্যন্ত, সাপাহার সড়কের পত্নীতলা বাজার পর্যন্ত ও বদলগাছী সড়কের ভাবিচা মোড় পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ (সওজ) এর যায়গা গুলো অবৈধ ভাবে দখল করে স্থাপনা নির্মান ও দোকানপাট সহ বিভিন্ন সামগ্রী রাস্তার উপর রাখছে অবৈধ ভাবে দখল করা স্থাপনা নির্মানকারীরা। প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন নজরদারী না থাকায় গোল চত্বর সহ আশেপাশের এলকা জুড়ে এসব অবৈধ স্থাপনা ও দোকানপাটের সংখ্যা দিনদিন বেড়েই চলেছে।

এদিকে নজিপুর-ধামইরহাট সড়কের নজিপুর গোলচত্বর থেকে ১৪ বিজিবি ক্যাম্প, সাপাহার সড়কের সিদ্দিক প্রতাপ সেতু, বদলগাছী সড়কের ভাবিচা মোড় ও নওগাঁ সড়কের কাঞ্চন পর্যন্ত সহ নজিপুর পৌরসভা এলাকার রাস্তার পাশ গুলো ভরাট করে স্থাপনা নির্মান করায় অত্র এলাকার পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা একে বারেই বন্ধ হয়ে গেছে। অপরদিকে নজিপুর বাসস্ট্যান্ড গোল চত্বর থেকে চতুর্দিকে এসব রাস্তায় বঙ্গা কারখানা, ওয়েল্ডিং কারখানা, স-মিলের কাঠ, বাসা-বাড়ি তৈরীর ইট, বালি ও অণ্যান্য সামগ্রী রাখা, মেসিনারীজ দোকানপাটের মালামাল ওঠানো, নামানো সহ রাস্তার উপর বিভিন্ন দোকানপাট গড়ে ওঠায় যানবাহন সহ পথচারী চলাচল হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। অন্যদিকে বাস সহ ব্যাটারী চালিত চার্জার (ইজি বাইক), বিক্সা, ভ্যান সংকির্ন রাস্তার উপর অপরিকল্পিত ভাবে দাড়িয়ে থেকে আরেক ভোগান্তির সৃষ্টি করেছে। এমনকি নজিপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের কার্যালয়ের বাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে অবৈধ স্থাপনা নির্মানের কাজ চলছে অবাধে। এবিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন সভায় আলোচনা হলেও আদৌও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

নজিপুর বাসস্ট্যান্ড গোল চত্বর দিয়ে প্রতি দিন রাজধানী ঢাকা সহ পোরশা, সাপাহার, ধামইরহাট ও পত্নীতলার কয়েক হাজার যানবাহন দিবারাত্রী চলাচল করে থাকে। এবাদেও উওরাঞ্চলের পঞ্চগড় দিনাজপুর থেকে রাজশাহী-নবাবগঞ্জের সাথে অতি সংক্ষেপে সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা পত্নীতলার নজিপুরের উপর দিয়েই। এছাড়াও দেশের উদ্বৃত্ত ধান উৎপাদন এলাকা হিসাবে পরিচিত নওগাঁ জেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন উপজেলা পত্নীতলা সহ পাশ্ববর্তী উপজেলা পোরশা-সাপাহারের উৎপাদনকৃত ধান বহনকারী হাজার হাজার ট্রাক সহ অন্যান্য যানবাহন পত্নীতলার নজিপুরের উপর দিয়েই চলাচল করে থাকে। নজিপুর চারমাথা গোলচত্বরের চারিদিকে সড়ক ও জনপথের বিশাল যায়গা থাকলেও সেগুলি অবৈধ ভাবে দখল হওয়ায় সংকীর্ণ হয়ে আসা রাস্তার উপরই বাস দীর্ঘক্ষন দাঁড়িয়ে যাত্রী ওঠানামা করানো হয়।

পত্নীতলা সহ অত্রাঞ্চলের একমাত্র যোগাযোগের কেন্দ্র উপজেলা সদরের ব্যস্ততম নজিপুরে নির্দিষ্ট কোন বাস টার্মনাল ও যাত্রী ছাউনি না থাকায় এবং চারমাথা গোলচত্বরের চারিদিকে সড়ক ও জনপথের যায়গা গুলি অবৈধ ভাবে দখল হওয়ায় রাস্তার উপরই বাস দীর্ঘক্ষন দাঁড়িয়ে যাত্রী ওঠানামা করানোয় যানযট সহ যাত্রী দূর্ভোগ সহ পথচারীদের চলাচলে হুমকির সম্মুখিন হয়ে দাড়িয়েছে।

নওগাঁর সাথে সাপাহার, পোরশা, ধামইরহাট, পত্নীতলার লোকাল বাস চলাচলের পাশাপাশি ঢাকার কোচ গুলি এসে নজিপুর চারমাথা গোলচত্বরে যখন যাত্রী ওঠা নামা করায় তখন উক্ত এলাকায় চরম যানযটের সৃস্টি হয়ে যায়। আর এই যানযট নিরসনে একটি বাস টার্মিনাল ও যাত্রী ছাউনি স্থাপন অতিব প্রয়োজন বলে এলাকাবাসী দীর্ঘ দিন দাবী জানিয়ে আসলেও এখনোও পর্যন্ত তার ব্যবস্থা হয় নাই।

স্থানীয় বাস ও ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাওয়ার দুর পাল্লার গাড়ী গুলি নজিপুর চারমাথা গোলচত্বরে এসে রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে যাত্রী ওঠানামা করায় দিন দিনই নজিপুর বাসষ্ট্যান্ডে যানযট যেমন বেড়েই চলেছে তেমনি জন দূর্ভোগও বেড়েগেছে। পাশাপাশি ট্রাক গুলো নজিপুর চারমাথা গোলচত্বরের এলাকায় রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে মালামাল ওঠানামা করায় আরেক ভোগান্তির সৃস্টি হয়েছে। অতিসত্বর নজিপুর চারমাথা গোলচত্বরের যানযট নিরসনে উর্দ্ধতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষন করছে এলাকাবাসী।

এব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগ পত্নীতলার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী (অতিরিক্ত) আবুল মনসুর আহম্মেদ জানান, সড়ক ও জনপথের যায়গা গুলো উদ্ধার সহ নজিপুর বাসস্ট্যান্ড ও অত্র এলাকার যানজট নিরসনে সড়ক ও জনপথ বিভাগ অতিসত্বর কাজ শুরু করবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই