তারিখ : ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ত্রিশালে প্রেমিকাকে বিয়েতে অসম্মতি,প্রেমিকার আত্বহত্যা

ত্রিশালে প্রেমিকাকে বিয়েতে অসম্মতি, ক্ষোভে প্রেমিকার আত্বহত্যা
[ভালুকা ডট কম : ০৪ ফেব্রুয়ারী]
দীর্ঘ দিনের প্রেম-ভালবাসার সম্পর্ক। বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে সম্পর্ক করার পর প্রেমিক বিবাহে অসম্মতি জানালে ক্ষোভে প্রেমিকা বিষপানে আত্বহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার কাঠাঁল ইউনিয়নের তেতুলিয়াপাড়া গ্রামে। নিহতের পরিবার প্রতারক প্রেমিক প্রভাবশালী গ্রাম্য শালিশদারের দৃষ্টান্ত মূলক বিচার দাবী করেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার কাঠাঁল ইউনিয়নের তেতুলিয়াপাড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে আছমা খাতুন (২৩) স্থানীয় ‘আয়নাক্ষেত গ্রাম সমিতি’ নামের এক বেসরকারী এনজিওতে কাজ করত। ক্ষুদ্র ঋন দেয়া নিয়ে একই গ্রামের দেওয়ানিয়া বাড়ী এলাকার সিরাজের ছেলে সাব্বির আহমেদ শুভ’র সাথে পরিচয় ঘটে। ভাললাগা, ভালবাসা, এক পর্যায়ে বিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েটির সাথে সব ধরনের সম্পর্কে জড়িয়ে পরে শুভ। তাকে বার বার বিয়ের কথা বললেও রাজি হচ্ছিলনা শুভ।

স্থানীয় কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, মেয়েটি অন্তস্বত্যা হওয়ায় লোক লজ্জার ভয়ে ছেলেটিকে বিয়ের জন্য তাগিদ দিচ্ছিল। রবিবার ১১টার দিকে মেয়েটি বাড়ি থেকে বের হয়ে ছেলের সাথে দেখা করে এবং বিয়ের কথা বললে ছেলেটি তাতে অসম্মতি জানায়। ক্ষোভ আর কষ্টে তাৎক্ষনিক আছমা খাতুন। পরে শুভ তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং আসমার বোনকে খবরটি জানিয়ে সটকে পড়ে শুভ। বোনেরা হাসপাতালে পৌছলে শুরু হয় আসমার চিকিৎসা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর আড়াইটার দিকে মৃত্যু হয় আসমা খাতুনের।

এনজিও কর্মী আসমা খাতুনের বড় বোন জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, ছেলেটির সাথে আমার বোনের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিল। গত অক্টোবর মাসে ছেলেটি আমাদের বাড়িতে আসলে আমরা বিয়ের তাগিদ দেয় এবং স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে বিয়ে কথা বললে শুভ বিয়েতে রাজি হয়। এ সময় স্থানীয় প্রভাবশালী মকবুল হোসেন শুভ’র কাছ থেকে টাকা খেয়ে তাকে বিয়েতে রাজি করাবে বলে আমাদের বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। গতকাল সকালে আমার বোন বাড়ি থেকে বের হলে দুপুরে তার প্রেমিক আমাদের ফোন করে জানায় আছমা বিষপান করে ময়মনসিংহ মেডিকেলে আছে। আমরা ময়মনসিংহ মেডিকেলে আমাদের বোনের কাছে গেলে ছেলেটি আমাদের রেখে পালিয়ে যায়। কিছুক্ষন পর আমার বোন মারা যায়। আমি এর বিচার চাই। গ্রাম্য শালিশদারদের বিচার চাই। তবে শুভ’র পিতা সিরাজুল ইসলামের দাবী এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

আছমা খাতুনের মৃত্যু হয়েছে বিষপানে তবে অন্তস্বত্যার বিষয়টি ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে বলা যাবে বলে জানান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।ত্রিশাল থানা অফিসার ইনচার্য (ওসি) আজিজুর রহমান জানান, ঘটনার শুনার পরপরই থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহে মেডিকেল কলেজ মর্গে আছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগে প্রেক্ষিতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

জীবন যাত্রা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৫৭ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই