তারিখ : ২৬ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় জেনারেটরের বিকট শব্দে ৪০০ পরিবারে দূর্ভোগ

ভালুকায় ফ্যাক্টরীর জেনারেটরের বিকট শব্দে ৪০০ পরিবারে দূর্ভোগ
[ভালুকা ডট কম : ১৪ ফেব্রুয়ারী]
ভালুকায় একটি শিল্পপ্রতিষ্ঠানের গ্যাসচালিত জেনারেটরের বিকট শব্দে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন অন্তত ৪০০ পরিবারের কয়েক হাজার বাসিন্দা, স্কুল, মাদরাসার শিক্ষক শিক্ষার্থী, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের লোকজনসহ পথচারীরা। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী ও পরিবেশ অধিদপ্তর বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

সরেজমিন ফ্যাক্টরীর আশপাশ ঘুরে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে যানা গেছে, উপজেলার জামিরদিয়া এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসকের পূর্বপাশে আবাসিক এলাকায় অবস্থিত এসকিউ গ্রুপের কালার ফ্যাশন নামক শিল্পপ্রতিষ্ঠানটি গ্যাসচালিত জেনারেটরে উৎপাদন কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। গত প্রায় পাঁচ বছর ধরে স্থাপন করা এই জেনারেটরের বিকট শব্দে ও বিষাক্ত দূয়াই ফ্যাক্টরীর পেছনে ২ নম্বর গেইট এলাকার প্রায় ৪০০ শতাধিক পরিবারের কয়েক হাজার বাসিন্দা, দু’টি মসজিদের মুসল্লি, দু’টি মাদরাসা, শহীদ একাডেমি নামে একটি বিদ্যালয় ও ২৫/২৬ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের লোকজন চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। এ ব্যাপারে বার বার প্রতিবাদ করা হলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেননা বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দা সামিউল হক শ্যামল, আলাল উদ্দিন, আব্দুল হেকিম, আব্দুল মতিন, আব্দুল হাই, হেলাল উদ্দিন, ব্যবসায়ী আবু রায়হান, আব্দুল হক, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল মতিন ও আব্দুল হামিদ জানান, গত পাঁচ বছর ধরেই তারা ফ্যাক্টরীর জেনারেটরের বিকট শব্দে অতিষ্ঠ। স্কুল ও মাদরাসাগামী ছেলে মেয়েরা রাতে পড়াশেনা করতে পারছেনা, এমনকি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ক্রেতাদের সাথে কথা বলতে এমনকি একাধিকবার পন্নের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করতে হয়। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় আলাউদ্দিন ফকির বাদি হয়ে ময়মনসিংহ পরিবেশ অধিদপ্তর বারাবর এলাকাবাসির স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ ও সামিউল হক শ্যামল বাদি হয়ে ফ্যাক্টরীর অ্যাডমিন ম্যানেজার রিয়াজ, স্ট্যাশন ম্যানেজার ফরিদ, অ্যাডমিন অফিসার কালামকে বিবাদী করে ভালুকা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে।

অভিযোগকারী সামিউল হক শ্যামলসহ আশপাশের বাসিন্দারা আরো জানান, মিল কর্তৃপক্ষের ভাড়াটিয়া লোকজন অব্যাহতভাবে তাদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোসহ বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতির হুমকী দিয়ে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে ফ্যাক্টরী ম্যানেজার ফরিদ আহমেদ জানান, জেনারেটরের সাইল্যান্সারের পাইপ ৪০ ফিট উচু করা হচ্ছে। ফলে শব্দ উপরে চলে যাবে। এই জন্য ময়মনসিংহ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালকের কাছ থেকে ১৫ দিনের সময় নেয়া হয়েছে। আশা করছি এর আগেই কাজ শেষ করতে পারবো এবং স্থানীয়দের সমস্যা দূর হবে। তবে ওই কাজে কর্মরত শ্রমিকদের উপর প্রায়ই স্থানীয়দের ইঁটপাটকেল নিক্ষেপের কারণে কাজে বিগ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।

ভালুকা মডেল থানার এসআই মো: মোস্তফা জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরির্দশণ করা হয়েছে। ময়মনসিংহ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ফরিদ আহমদ জানান, সরেজমিন পরিদর্শণ করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে এবং ১৫ দিনের সময় দেয়া হয়েছে ফ্যাক্টরীর কর্তৃপক্ষকে বিকল্প ব্যবস্থা নেয়ার জন্য। যদি তা না নেয়া হয়, তবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#

 





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৬০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই