তারিখ : ২৫ মে ২০১৯, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বিকল্প ব্যবস্থা না করে হকার উচ্ছেদ নিষ্ঠুরতা- মোস্তফা

বিকল্প ব্যবস্থা না করে হকার উচ্ছেদ নিষ্ঠুরতা- মোস্তফা
[ভালুকা ডট কম : ২৮ ফেব্রুয়ারী]
বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না করে ফুটপাত থেকে হকারদের উচ্ছেদ বন্ধ করার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া। তিনি বলেন, বিকল্প ব্যবস্থা না করে হকার উচ্ছেদ নিষ্ঠুরতা, মানবতা পরিপন্থি। পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করে এই উচ্ছেদ গরিব হকারদের পেটে লাথি মারার শামিল। হকাররা সকল সময়ই বিভিন্ন মহলের নির্যাতন সহ্য করে ব্যবসা করে আসছে। সারাদিন কষ্ট করে সামন্য টাকা ইনকাম করে পরিবার নিয়ে কষ্টে দিন কাটায়।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনস্থ যাদু মিয়া মিলনায়তনে বিকল্প ব্যবস্থা না করে হকার উচ্ছেদের প্রতিবাদে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, দেশ আজ দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। এক ভাগ লুটেরা শক্তি আর অন্যদিকে মেহনতি মানুষ। সরকার লুটেরাগোষ্টির স্বার্থ রক্ষা করছে বলেই মেহনতি মানুষের পেটে লাথি মারছে। পুর্নবাসনের ব্যবস্থা না করে হকার উচ্ছেদ বন্ধ করে যারা আবাসিক এলাকায় কেমিক্যাল রাখে, গুদাম করে রাখে তাদের উচ্ছেদের ব্যবস্থা করেন। গরীব মানুষের পেটে লাথি না মেরে যারা দুর্নীতিবাজ, হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে লুট করে বিদেশে নিয়ে যাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

তিনি আরো বলেন,সারাদেশে ১০ লাখ হকার আছে। পরিবার-পরিজনসহ তাদের ওপর নির্ভরশীল প্রায় এক কোটি মানুষ। ফুটপাত থেকে তাদের উচ্ছেদ করলে এ এক কোটি লোক বিপদগ্রস্থ হবে।  প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতে হকারদের জন্য আইন করা হয়েছে। সেখানে বলা আছে, ফুটপাতের এক-তৃতীয়াংশ হকাররা ব্যবহার করতে পারবে। দিল্লিতে, কলকাতায় যদি এই আইন থাকে বাংলাদেশে এই আইন করলে সমস্যা কোথায় ? সরকার যদি ১০ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে তাদের খরচ বহন করতে পারে, তাহলে হকারদের জন্য পুনর্বাসন করার ব্যবস্থাও করতে পারে। হকার উচ্ছেদের পূর্বে তাদের জীবন-জীবিকার বিষয়ে ভাবুন। তাদের দুঃখ বোঝার চেষ্টা করুন। পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে এরপর তাদের উচ্ছেদ করুন। কেউ কোন প্রতিবাদ করবে না। কিন্তু পূর্নবাসনের ব্যাবস্থা না করে তাদের পেটে লাথি মেরে উচ্ছেদ করবেন না।

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু'র সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান কাজী ফারুক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, নগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মো. শামিম ভুইয়া, মেহেদী হাসান হাওলাদার, যুবনেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী, সাবেক ছাত্রনেতা সোলায়মান সোহেল প্রমুখ। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই