তারিখ : ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় সরকারী খাল দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ

ভালুকায় সরকারী খাল দখল করে ফ্যাক্টরীর সীমানা প্রাচীর নির্মাণের অভিযোগ,বর্ষায় জলাবদ্ধতার আশংকা
[ভালুকা ডট কম : ২৪ মার্চ]
ভালুকায় একটি নির্মানাধীন ডায়িং এন্ড নিটিং ফ্যাক্টরী কর্তৃক সরকারী খাল দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। এতে বর্ষায় ঢলের পানি সহ ওই এলাকার শতাধিক মিল কারখানার বর্জ্য মিশ্রিত দূষিত পানি উজান এলাকায় আটকাপরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে কৃষি জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও পরিবেশ হুমকীর মুখে পরবে বলে এলাকাবাসি আশঙ্কা করছেন ।

ওই এলাকার লোক জনের সাথে কথা বলে জানা  যায় ইউনিভার্সাল ডেনিমস লিমিটেড নামে একটি প্রস্তাবিত ডায়িং এন্ড নিটিং ফ্যাক্টরী কর্তৃপক্ষ এক বছর আগে ভালুকা উপজেলার পাড়াগাঁও মৌজার ৩০ একর ও পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর মৌজার ৭০ একর আবাদী জমি ক্রয় করে তাতে মাটি ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণ শুরু করেছেন। সম্প্রতি ফ্যাক্টরী কর্তৃপক্ষ উজান থেকে বয়ে আসা সরকারী লাউতি খালটির দখলে নিয়ে খালের মাঝখানদিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শুরু করেছেন। এতে ওই এলাকার কৃষি জমিসহ পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

এলাকার লোকজন জানান, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলাসহ ভালুকা উপজেলার দক্ষিণাঞ্চল হবিরবাড়ি এলাকায় অবস্থিত শতাধিক বিভিন্ন ধরণের শিল্প প্রতিষ্ঠানের বর্জ্য এই খালটি দিয়ে ভালুকার খিরু নদীতে গিয়ে পড়ে। কিন্তু খালটি দখলে নিয়ে ফ্যাক্টরীর সীমাণাপ্রাচীর নির্মাণ হওয়ায় তা বন্ধ হয়ে মারাত্মক জলাবদ্ধার সৃষ্টি হবে। এতে ওই এলাকার শত শত একর জমির বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সহ জনস্বাস্থ্যের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায়  হবিরবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ গত ২০১৮ সালের ১৪ জানুয়ারী রোববার দিনব্যাপী ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের পাড়াগাঁও-গৌরীপুর সীমানা হতে ভরাট হওয়া ২০ ফুট প্রস্থ্যে লাউতি নামের ওই খালটির প্রায় তিন কিলোমিটার অংশের জমি উদ্ধার করেন ।

এ সময় উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার সেলিম হাসান, ইউপি সদস্য সহ স্থানীয় লোকজন নিয়ে ম্যাপ দেখে জমি মেপে খালের সীমানা চিহ্নিত করে উভয় দিকে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়। পরে ৪ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৫টায় খালের খনন কাজ উদ্ভোধন করেন ময়মনসিংহের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ময়মনসিংহ একে এম গালীব খান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল, সহকারী কমিশনার (ভুমি) দীপায়ন দাস শুভ,হবিরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু, ইউনিয়ন সহকারী ভুমি কর্মকর্তা মনির হোসেন মোস্তুফা কামাল, ইউপি সদস্য বুলবুল আহাম্মেদসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ ঘটা করে খালের জমি উদ্ধার, জেলার কর্মকর্তাদের খনন কাজের উদ্বোধন অতপর অজ্ঞাত কারনে খাল খনন কাজ পরবর্তীতে আর আলোর মুখ দেখেনি বরং লাল নিশানে সীমানা করা জমির উপর মাটি ভরাট ও খালের মাঝখানে ফ্যাক্টরী কর্তৃক আর সিসি পিলার দিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করলেও কর্তৃপক্ষের নজরে আসেনি।

ওই ফ্যাক্টরীর সিকিউরিটি ইনচার্জ মোঃ রুহুল আমিন জানান, ফ্যাক্টরীর নির্মাণকাজ চলমান থাকায় এখানে কোম্পানীর লোকজন সব সময় থাকেন না, স্থানীয়ভাবে মোরাদ সরকার বিপ্লব নামে এক ব্যক্তি দেখাশোনা করে থাকেন। তবে তিনি এলাকায় না থাকায় তার মতামত পাওয়া যায়নি ।

হবিরবাড়ী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ বাচ্চু জানান খাল দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মানের বিষয়টি তিনি অবগত নন তবে ক্যামেরার ছবি দেখে অনুমান করে বলেন হয়তবা ২/৩ ফুট দখল হয়েছে সরজমিন দেখে তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই