তারিখ : ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

তজুমদ্দিনে চর মোজাম্মল থেকে মা ও মেয়ে অপহরণ,আটক-১

তজুমদ্দিনে চর মোজাম্মল থেকে মা ও মেয়ে অপহরণ,আটক-১
[ভালুকা ডট কম : ১১ জুন]
ভোলার তজুমদ্দিনের চর মোজাম্মেলে কাজিকান্দি ব্লক থেকে অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে ও তার মাকে অপহরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার অপহৃতার বোন বিবি হাজেরা থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযুক্ত একজনকে আটক করে। তবে এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত মা-মেয়েকে উদ্ধার করা যায়নি।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ চর মোজাম্মেলের মুক্তিযোদ্ধা বাজার এলাকার কাজিকান্দি ব্লকের রফিজল ইসলামের স্বামী পরিত্যক্তা মেয়ে (২২) ও তার স্ত্রী বিবি জরিনা বেগমকে চরের ঘর থেকে জোড়পূর্বক তুলে নিয়ে যায় ওই এলাকার ব্লক লিডার আঃ রব, কামাল জমিদার, শাহে আলম ও সেলিম।  অপহৃত জরিনা বেগমের বোন বিবি হাজেরা জানান, তার ভগ্নিপতি রফিজলকে চরে অবরুদ্ধ করে রাখে ব্লক নেতাদের লোকজন। তজুমদ্দিন থানার ওসি’র সাথে দেখা করে ঘটনা জানানো হয়েছে।

বিবি হাজেরা আরো জানান, গত ৪/৫ মাস আগে ঘরে একা পেয়ে ব্লক লিডার আঃ রব আমার বোনের মেয়েকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে। স্বামী পরিত্যক্তা ওই মেয়ে ঘটনাটি মা-বাবাকে জানালে তাদেরকে চর থেকে উৎখাত করার হুমকি দেয়। এরপরও বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে দৈহিক মেলামেশা করে। যার ফলে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পরে। আমরা তাকে তজুমদ্দিনে নিউ ফেমাস ডায়াগনষ্টিকে এনে পরীক্ষা নিরীক্ষা করলে অন্তঃসত্ত্বার বিষয়টি নিশ্চিত হই। এ ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে মা-মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে।

তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ ফারুক আহম্মদ জানান, বিবি হাজেরা নামের একজন মহিলা তার বোন ও বোনের মেয়েকে চর থেকে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আঃ রবকে আটক করা হয়েছে। অপহৃতাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।#   





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই