তারিখ : ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

রাণীনগরে কথিত সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জিডি

রাণীনগরে কথিত সাংবাদিক সুকুমল কুমারের বিরুদ্ধে থানায় সাধারন ডায়েরী দায়ের
[ভালুকা ডট কম : ১৫ জুন]
নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার কথিত হলুদ সাংবাদিক শ্রী সুকুমল কুমার প্রামাণিকের বিরুদ্ধে থানায় একটি সাধারন ডায়েরী দায়ের করেছেন দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার রাণীনগর উপজেলা সংবাদদাতা ও নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবের সদস্য সাংবাদিক আব্দুর রউফ রিপন। শনিবার বিকেলে রাণীনগর থানায় এই সাধারন ডায়েরী (জিডি) দায়ের করা করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের কারণে কয়েক বছর আগে নিজ গ্রাম থেকে কলম ভাঙ্গা অর্ধ-শিক্ষিত সুকুমল কুমারকে এলাকাবাসী পরিবারসহ বিতাড়িত করেন। এরপর সে রাণীনগর বাজারের আশেপাশের বিভিন্ন জায়গায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছে। আয়ের উৎস হিসেবে সাংবাদিকতাকে বেছে নিয়ে হঠাৎ সে নিজেকে সাংবাদিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। এরপর থেকেই সে হলুদ সাংবাদিকতার মাধ্যমে বিভিন্ন অফিসের দালালী ও অনৈতিক কর্মকান্ড করে আসছে। উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষকে কারণে-অকারণে জিম্মি করে সাংবাদিকতা নামক মহান পেশার ভয় দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে অর্থ। এভাবেই সে দিনমজুর পিতার পরিবারের ব্যয় বহন করে আসছে।

এই সব কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতায় সে বেশকিছুদিন যাবত দেশের ঐতিহ্যবাহী প্রভাবশালী প্রাচীন পত্রিকা দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় ভুয়া news24raninagar@gmail.com এই নামের একটি মেইল আইডি থেকে ভুল ও বানোয়াট বিভিন্ন সংবাদ পাঠিয়ে আসছে। সে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার প্রতিনিধি সাংবাদকর্মী রিপনকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন ও মান ক্ষুন্ন করার লক্ষ্যে এইরকম কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। অথচ সাংবাদিক আব্দুর রউফ রিপন ৮বছর যাবত দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় নওগাঁ জেলার রাণীনগর উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে সুনামের সঙ্গে কাজ করে আসছেন। এছাড়াও হলুদ সাংবাদিক সুকুমল বিগত সময়ে উপজেলার সিনিয়র অনেক সংবাদকর্মীর পত্রিকা অফিসেও এই ভুয়া মেইলের মাধ্যমে সংবাদ পাঠিয়ে এই সব অনৈতিক কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। তার এই সব কর্মকান্ডকে বন্ধ করা ও সমাজের মানুষের কাছে তার হলুদ সাংবাদিকতার মুখোশ খুলে দেওয়া লক্ষ্যে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মোতাবেক থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রাণীনগর থানায় জিডি নং ৪৭৮। তারিখ-১৫-০৬-১৯ইং।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলার অনেকেই বলেন দিন দিন দেশে যোগ্যতাবিহীন হলুদ সংবাদকর্মীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তাদের দ্বারা দেশ ও জাতির জন্য কোন কল্যাণকর কাজ করা সম্ভব নয়। কারণ তারা এই মহান পেশাকে অবৈধ ভাবে অর্থ আয়ের হাতিয়ার হিসেবে গ্রহণ করে। এরা রাতের অন্ধকারে আলো-আধাঁরী ও নামী-বেনামী বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের পরিচয়পত্র কিনে এনে শুরু করে সমাজের মানুষকে জিম্মি করে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার কাজ। তার বিভিন্ন খামখেয়ালীপনার কারণে সরকারী বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজেও চরম ব্যাঘাতের সৃষ্টি হয় বলে উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিরা অভিযোগ তুলেছেন। শুধু তাই নয় দিনের দিনের পর তার বিভিন্ন অপকর্মে উপজেলা দপ্তরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন পেশাজীবীর মানুষ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে বলে জনশ্রুতি আছে। এদের ভয় না করে আমাদের সবার উচিত এদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করা উচিত। তা না হলে ভবিষ্যতে তারা এই রকম কর্মকান্ডের মাধ্যমে দেশ ও সমাজকে নষ্ট করে ফেলবে। সেই শ্রেণিরই একজন অন্যতম দৃষ্টান্তর হলুদ সাংবাদিক শ্রী সুকুমল কুমার প্রামাণিক। সে কারণে-অকারণে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার ব্যক্তিদের মান ক্ষুন্ন করে আসছে। সাংবাদিক নামক নামটিকে সে পুজি করে অবৈধ ভাবে সমাজের বিভিন্ন গন্যমান্য মানুষকে জিম্মি করে হাতিয়ে নিচ্ছে অর্থ।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএসএম সিদ্দিকুর রহমান বলেন এই বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই