তারিখ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে মায়ের উপর ছেলের হামলা,আহত ২

নান্দাইলে মায়ের উপর ছেলের হামলা,আহত ২,থানায় মামলা দায়ের
[ভালুকা ডট কম : ১৯ আগস্ট]
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী বিধবা রহিমা খাতুন (৬৫)কে নিজ সন্তান বাবুল মিয়া (৪৫) মারধর করে। এছাড়া বিধবা রহিমা খাতুনকে বাচাঁতে গেলে প্রতিবেশী সোহাগ হাসান ও মাসুদ মিয়াকে বাবুল মারধর করে গুরুতর আহত করে।

থানায় দায়েরকৃত এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, ঈদের দিন প্রতিবেশীর দেওয়া কোরবানির বিতরণের গোশত বিধবা রহিমা খাতুন ঘরে নেওয়ায় নিজ সন্তান বাবুল মিয়া তাকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ সহ মারধর করে। মাকে মারধরের বিষয়টি প্রতিবেশী মো. আঃ রাশিদের পুত্র সোহাগ হাসান ও মাসুদ মিয়া দেখতে পেয়ে ফিরাতে গেলে বাবুল মিয়া পূর্বশত্রুতার জেরবশত তাদেরকে বেধরক মারধর করে গুরুতর আহত করে। এতে মাসুদ মিয়ার কাধে রামদা কোপের আঘাতে মারাত্মক জখম হয়। জানাযায়, দীর্ঘদিন যাবত প্রতিবেশী মাসুদ ও সোহাগের পরিবারের সাথে পূর্বশত্রুতা চলে আসছিল। আহত মাসুদ ও হাসানকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরে আঃ রাশিদ এলাকার ব্যাক্তিবর্গ সহ বাবুলের বিধবা মা রহিমা খাতুন ও তার তিন বোন এবং বোনের জামাই সহ নান্দাইল মডেল থানায় আঃ রাশিদ বাদী হয়ে ১৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার মো. বাবুল মিয়া, এনামুল হক, গোলাম হোসেন, জুয়েল মিয়া, আব্দুল আলী ও লাদেনের নাম উল্লেখ করে পেনাল কোড ১৮৬০এর ১৪৩/ ৩২৩/ ৩৮০/৩২৬/৩০৭/৫০৬/১১৪/৩৪ ধারায় মামলা নং ২৯ দায়ের করে।

উক্ত মামলার বাদী আঃ রাশিদ জানান, নিজ মাকে প্রহৃত ছেলে বাবুল মিয়া এলাকার একজন জুয়াবাজ  ও খারাপ প্রকৃতির লোক। তার মাকে বিভিন্ন সময় মারধর করে থাকে। বিধবা রহিমা খাতুন ও তার তিন মেয়ে অভিযুক্ত বাবুল মিয়ার বিচার চান।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই