তারিখ : ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁয় আদিবাসীদের কারাম উৎসব পালিত

নওগাঁয় আদিবাসীদের কারাম উৎসব পালিত
[ভালুকা ডট কম : ১৫ সেপ্টেম্বর]
আদিবাসীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব কারাম উৎসব বা ডাল পূঁজা। বংশ পরম্পরায় যুগ যুগ ধরে প্রতি বছর উত্তরের সমতল ভূমির নওগাঁর আদিবাসীরা ডাল পূঁজা পালন করে আসছে। রাতভর পূজা-পার্বনের মধ্যেদিয়ে শুরু হয়ে শনিবার বিকেলে মহাদেবপুর উপজেলার নাটশাল ফুটবল মাঠে পালিত হয় আদিবাসীদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কারাম। এ উপলক্ষে কয়েকটি জেলা থেকে আগত আদিবাসী বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন উৎসবে যোগ দিয়ে তাদের নিজেদের ভাষা সাংস্কৃতি আর ঐতিহ্য তুলে ধরে দলবদ্ধ নৃত্য পরিবেশন করে।

এ উপলক্ষে রবিবার বিকেলে সেখানে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, স্থানীয় সাংসদ ছলিম উদ্দিন তরফতার সেলিম। জাতীয় আদিবাসি পরিষদ জেলা শাখার সভাপতি আমিন কুজুরের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহাদেবপুর সার্কেল আবু সালেহ মো: আশরাফুল আলম, মহাদেবপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আহসান হাবীব ভোদন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক সবিন মুন্ডা, সদস্য এ্যাড: বাবুল রবিদাস, শহীদ হাসান সিদ্দিকী স্বপন, কেন্দ্রীয় কমিটির যুব পরিষদের সাধারন সম্পাদক নরেন চন্দ্র পাহান, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ মহাদেবপুর শাখার সভাপতি দিলীপ পাহানসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

১৯৯৬ সাল থেকে নাটশাল মাঠে নিয়মিত পালন করা হয় কারাম উৎসব। প্রতি বছর ভাদ্র মাসের পূর্ণিমায় পালন করা হয় এই পূজা। এই উৎসবকে ঘিরে মূখরিত হয়ে নওগাঁর আদিবাসি বসবাসরত এলাকাগুলো। পূঁজার সময় আদিবাসী সহদ্বয় দুই ভাই ধর্মা ও কর্মা’র জীবনী তুলে ধরা হয়। আদিবাসি বিশ্বাস করে ধর্ম পালন করায় ধর্মা রক্ষা পান সকল বিপদের হাত থেকে। আর কর্মা ধর্ম পালন না করায় তার ক্ষতি হয়। ভাদ্র মাসের প্রথম পূর্ণিমায় আদিবাসি সম্প্রদায়ের লোকজন উপবাস করে কারাম গাছের গাল কেটে আনেন। এরপর সন্ধ্যায় পুঞ্জিকা মতে পূর্ণিমা শুরু হলে কারামডাল কেটে অস্থায়ী মন্ডবে পুঁতে রেখে পূজা-অর্চনা আর নাচ-গান ও কিচ্ছা বলার মধ্য দিয়ে প্রতি বছর কারাম এ উৎসব পালন করে।

এ সময় পুরো এলাকা আদিবাসীসহ সকল সম্প্রদায়ের মিলনে হয়ে উঠে মিলন মেলা। পূজা শেষে পরদিন কারাম ডাল উঠিয়ে গ্রামের তরুণ-তরুণীসহ সব বয়সের নারী-পুরুষ নেচে গেয়ে গ্রামের বাড়ি বাড়ি ঘুরে পুকুরে জলে বিসর্জন দেয় হয় কারাম গছের সেই ডাল। আদিবাসিরা এ কারাম উৎসবের জন্য অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষায় থাকেন। এ উৎসবে বিভিন্ন জেলার সাংস্কৃতিক দল তাদের নাচ-গান পরিবেশন করেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

বিনোদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই