তারিখ : ১৪ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে নিহত ১ আহত ১

ভালুকায় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে নিহত ১ আহত ১
[ভালুকা ডট কম : ১৮ অক্টোবর]
ভালুকায় অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়ে এক ব্যক্তি নিহত ও অপর এক বিদেশ ফেরত নারী শ্রমিককে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

থানা সূত্রে জানাযায়, উপজেলার ধলিয়া গ্রামের শেখ বুলবুল আহম্মেদ গাড়ি যোগে বুধবার দুপুরে ঢাকা থেকে ভালুকায় ফেরার পথে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে। বাসের হেলপার ও সুপারভাইজার অজ্ঞান অবস্থায় তাঁকে সিডস্টোর বাজারে ফেলে রেখে যায়। এ সময় বুলবুলকে উদ্ধার করে প্রথমে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ (মমেক) প্রেরণ করা হলে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৪টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারযান। তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে বিনা ময়না তদন্তে লাশ দাফনের আবেদন করলে পুলিশ তাঁর পরিবারের লোকজনকে দিয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা করান। নিহতের পরিবার সূত্রে জানাগেছে বুলবুলের কাছে থেকে নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও একটি অ্যানড্রয়েট স্যামসং মোবাইল সেট নিয়ে যায়।

অপর দিকে বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি ফেরৎ নারী শ্রমিক শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে এক অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারান। সব কিছু রেখে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাঁকে ভরাডোবা-ঘাটাইল সড়কের উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের হাতিবেড় চকটানপাড়া জামে মসজিদের পাশে ফেলে রেখে যায়। ফজরের নামাজ পড়ে মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বের হয়ে দেখে অজ্ঞান অবস্থায় এক মহিলা পড়ে রয়েছেন। তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় নারী ইউপি সদস্য হামিদা খাতুনের বাড়িতে নিয়ে সেবা শুশ্রুসা করলে কিছুটা সুস্থ হন। তাঁর সাথে থাকা পাসপোর্ট ও বিমানের টিকেট থেকে জানাযায়,তাঁর নাম লাভলী বেগম স্বামী জনি আহম্মদ গ্রাম আসাননগর,উপজেলা আলমডাঙ্গা ও জেলা-চুয়াডাঙ্গা।

ইউপি সদস্য হামিদা খাতুন জানান, বিমান থেকে নামার পর চুয়াডাঙ্গার বাস না পেয়ে তিনি পুনঃরায় এয়ারপোর্টের ভিতরে ঢুকার সময় অপরিচিত এক ব্যক্তি তাকে চাচা পরিচয় দিয়ে গাড়িতে বাড়ি পৌঁছিয়ে দেয়ার কথা বলে প্রাইভেট কারে তোলে, ওই নারী শ্রমিকের সব কিছু রেখে আমাদের এ এলাকায় ফেলে রেখে যায়। তাঁর পরিবারের লোকজনের সাথে মোবাইলে কথা হয়েছে তাঁর স্বজনরা তাদের বাড়ি থেকে রওনা দিয়েছেন।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ পরিদর্শক মাজাহারুল ইসলাম জানান, বিদেশ ফেরৎ নারী অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ার বিষয়টি আমি অবগত নৈই। শেখ বুলবুলের স্বজনরা বিনা ময়না তদন্তে লাশ দাফনের আবেদন করলে ময়মনসিংহ কতোয়ালী থানার পুলিশ আমাকে জানায় লোকটির মৃত্যুর পেছনে বিষের ঘটনা আছে, তাই তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে অপমৃত্যুর একটি মামলা নিয়েছি। লাশ ময়না তদন্ত শেষে তাঁর পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই