তারিখ : ২৩ জানুয়ারী ২০২০, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

আজ রাণীনগর হানাদার মুক্ত দিবস

আজ রাণীনগর হানাদার মুক্ত দিবস
[ভালুকা ডট কম : ১০ ডিসেম্বর]
বাঙ্গালী জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামের চুড়ান্ত বিজয়ের দিন ১৬ ডিসেম্বরের বাকী আর ৬দিন। ১৯৭১ সালের ১০ডিসেম্বর রাণীনগর বাসীর জন্য একটি স্মরনীয় দিন। আজকের এই দিনে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা হানাদার মুক্ত হয়। স্বাধীনতার সংগ্রামে সাড়া দিয়ে সারা দেশের ন্যায় এই উপজেলার মুক্তিযোদ্ধারা মাতৃভূমিকে শত্রু মুক্ত করার লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন।

মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের ৯মাস রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ের পর নওগাঁর রাণীনগর উপজেলাবাসী আজকের এ দিনে শত্রুমুক্ত হয়ে  বিজয় উল্লাস আর “জয় বাংলা,বাংলার জয়” জয়ধ্বনিতে প্রকম্পিত করে তুলেছিল রাণীনগর উপজেলার আকাশ-বাতাস।এ এলাকা পাক হানাদার মুক্ত করতে অসংখ্য জীবন বলিদান এবং কত অসহায় মা বোনের ইজ্জত লুন্ঠন করেছিল সেই ভয়াবহ তিনে তার সঠিক পরিসংখ্যান কেউ জানে না। এছাড়াও পঙ্গুত্বের অভিশাপ আর মা-বাবা, স্বামী, স্ত্রী, ভাই, বোন হারানো অসহ্য যন্ত্রনা নিয়ে এখনও অনেক নারী-পুরুষ বেঁচে আছে। স্বাধীনতার এত বছর পেরিয়ে গেলেও কেউ তাদের খোজ-খবর রাখেনি।

মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু বলেন ৯ডিসেম্বর থেকে আমরা রাণীনগরে পাক-বাহিনীদের সঙ্গে যুদ্ধ শুরু করি। টানা ৩৬ঘন্টার যুদ্ধে ১০ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত করি রাণীনগরকে। আমাদের যুদ্ধের খবর পেয়ে নওগাঁ থেকে এসে আমাদের সঙ্গে যোগদেন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হারুন অল রশিদ ও রনজু ভাইয়ের দল। এরপর আমরা এই এলাকায় পাক বাহিনীদের সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করি। এই যুদ্ধে লুৎফর রহমান নামের এক সহযোদ্ধা পাক বাহিনীর গুলিতে মৃত্যবরন করেন। আর তার বুকের তাজা রক্তে হানাদার বাহিনী মুক্ত করি রাণীনগরকে।

সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এ্যাড. ইসমাইল হোসেন বলেন ১৯৭১ সালের ৯ই ডিসেম্বর রাণীনগর পাক-হানাদার মুক্ত করার লক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধারা থানা সদরে থাকা হানাদার ক্যাম্প চারিদিক থেকে ঘেরাও করেন। পরদিন ১০ই ডিসেম্বর ভোরে সম্মুখ যুদ্ধে অবতীর্ন হয়ে উভয় পক্ষ্যে গোলাগুলির এক পর্যায়ে ১৭জন রাজাকার অস্ত্র সহ আত্মসমর্পন করে। এই সময় পাক-বাহিনী সান্তাহার অভিমুখে পালিয়ে যায়। সেই সাথে বিরোচিত লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে রাণীনগর কে হানাদার মুক্ত করেন স্বাধীনতা যুদ্ধের সেই মুক্তিযোদ্ধা নায়ক সেনারা।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই