তারিখ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

ভালুকার করোনা আপডেট

২৯ জুলাই ২০২০, বুধবার
আক্রান্ত
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২৮০ জন
সুস্থ
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২১৯ জন
মৃত্যু
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৩ জন

বিস্তারিত বিষয়

রায়গঞ্জের একমাত্র পার্কটি বেহাল দশায়

রায়গঞ্জের একমাত্র পার্কটি বেহাল দশায়
[ভালুকা ডট কম : ১১ ডিসেম্বর]
রায়গঞ্জ পৌর এলাকার একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র ‘ইসহাক হোসেন তালুকদার পৌর পার্কটি’ এখন বেহাল দশায়। দীর্ঘদিন রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে পার্কটি এখন পরিত্যক্ত ও জঙ্গলাকীর্ণ। ফলে সন্ধ্যার পর এলাকাটি পরিণত হয় মাদকসেবীদের আড্ডাখানায়।

জানাগেছে- সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের প্রাক্তন এমপি প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী ইসহাক হোসেন তালুকদার পার্কটি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১২ সালের ২১ জানুয়ারি পৌরসভার ধানগড়া এলাকায় ফুলজোড় নদী তীরে মনোরম পরিবেশে প্রায় ৪৬ শতক জমির ওপর পার্কটি  প্রতিষ্ঠা করা হয়। এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে এর নামকরণ করা হয় ইসহাক হোসেন তালুকদার পৌর পার্ক। প্রাথমিক পর্যায়ে বিনোদন পিপাসুদের বসার জন্য পাঁচটি বেঞ্চ ও তিনটি ছাতা স্থাপন করা হয়।  প্রতিষ্ঠার পর দীর্ঘদিন সংস্কার, পরিচর্যা ও রক্ষণাবেক্ষণ অভাবে ক্রমশ দৈন্যদশায় পতিত হয় পার্কটি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পার্কের একটি বেঞ্চ ভাঙ্গা ও একটি ছাতা উধাও। পার্কজুড়ে গজিয়ে উঠেছে নানা রকমের আগাছা। স্থানীয়রা জানান, রক্ষণাবেক্ষণ অভাবে এ অবস্থা হয়েছে। দিনের বেলায়ও এখন আর সেখানে কেউ যায় না। সন্ধ্যা হলেই এখানে মাদকাসক্তদের আড্ডা বসে। এ কারণে ঐ পথে সন্ধ্যার পর কেউ চলাচল করে না।

প্রথম দিকে নিয়মিত যারা পার্কে আসতেন পৌর শহরের রণতিথা মহল্লার এমন একজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হাসানুজ্জামান সুলতান বলেন, নদীর ধারে জায়গাটি বড়ই চমৎকার। এখানে এক দন্ড বসলে মন প্রাণ জুড়িয়ে যেত।  এখন সেখানে আর বসার অবস্থা নেই। পার্কের পাশ্ববর্তী রায়গঞ্জ টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক সরকার বলেন, আশা করেছিলাম এটি সবার জন্য বিনোদনের স্থান হবে। কিন্তু অযত্ন অবহেলায় পার্কটি এখন বেহাল। তিনি আরো বলেন- শুধু পৌর এলাকা কেন, রায়গঞ্জ উপজেলায় আর কোন পার্ক নেই। তাই পার্কটির এরিয়া আরো সম্প্রসারিত করে এর উন্নয়ন কাজের পাশাপাশি বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ এবং রক্ষণাবেক্ষণের জন্য একজন কেয়ারটেকার নিয়োগ করা প্রয়োজন।

উল্লেখ্য, পার্ক প্রতিষ্ঠার পুর্বে ঐ স্থানে একটি প্রভাবশালী মহল গুচ্ছগ্রাম স্থাপনের উদ্যোগ নিলে পাশ্ববর্তী কলেজ ও কিন্ডার গার্টেন স্কুলের পরিবেশ রক্ষায় প্রকল্পটি বাতিলের জন্য এলাকাবাসী ও ছাত্র-ছাত্রীরা আন্দোলন শুরু করে। এতে প্রশাসনের টনক নড়ে। বিষয়টি অবগত হয়ে তদানিন্তন এমপি আলহাজ্ব গাজী ইসহাক হোসেন তালুকদার ঐ প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেন। এতে এলাকাবাসী খুশি হয়ে ঐস্থানে একটি সুস্থ্য বিনোদন পার্ক স্থাপন ও এমপি মহোদয়ের নামে তার নামকরণ করার দাবি জানান। এক পর্যায়ে পার্কের প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ শুরু হয়। পার্কটির প্রতিষ্ঠাতা এমপির মৃত্যুর পর এর দিকে কেউ আর নজর দেয়নি। ফলে পার্কটি পুর্ণাঙ্গ রূপ লাভের আগেই ধ্বংসের মুখে পতিত হয়েছে।

রায়গঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল্লাহ আল-পাঠান বলেন, পার্কের জায়গাটি এখনো সরকারি খাস সম্পত্তি। তাই এব্যাপারে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নিতে হবে। রায়গঞ্জ ইউএনও মোঃ শামীমুর রহমান বলেন- পৌর মেয়র উদ্যোগী হলে পার্কটিকে গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা যেতে পারে। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. ইমরুল হোসেন তালুকদার বলেন- এব্যাপারে তিনি সংশ্লিষ্ট ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে যোগাযোগ করবেন।  #




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই