তারিখ : ৩০ নভেম্বর ২০২২, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ধর্ষণের অভিযোগ সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন আটক

ভালুকায় কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন আটক
[ভালুকা ডট কম : ০৬ মার্চ]
ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া এলাকার তেপান্তর স্যুটিং স্পট থেকে সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয় দিয়ে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে শুক্রবার দুপুরে ভালুকা মডেল থানার পুলিশ আরাফাত শেখ অভি(২৭)কে গ্রেফতার করে। অভি ভালুকা পৌর সভার ৬নং ওয়ার্ডের মুন্সি ভিটার বাসিন্দা মৃত শফি উদ্দিনের ছেলে।

মামলা সুত্রে জানাযায়, ঢাকার সিদ্ধেশ্বরী কলেজের একদশ শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে ঘটকের মাধ্যমে অভির পরিচয় হয়। অভি নিজেকে সেনা বাহিনীর ক্যাপ্টেন হিসেবে পরিচয় দিয়ে দেড় মাস পূর্বে থেকে ওই ছাত্রীর সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলে। ভিকটিম ঢাকার মালিবাগ এলাকার মুনসুর আলী মহিলা হোস্টেলে থেকে সিদ্ধেশ্বরী কলেজে লেখা পড়া করেন। মোবাইল ফোনে গত দেড় মাস যাবত তাদের কথা হয়। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বৃহস্পতিবার (০৫মার্চ) দুপুর ১২টার সময়  ভিকটিমের হোস্টেলের সামনে থেকে একটি কালো রং এর প্রাইভেটকারে ভিকটিম কে তুলে নিয়ে বিকেল ৫টার দিকে ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া তেপান্তর স্যুটিং স্পটে নিয়ে এসে ১২৫নং রুমে আটক করে। বৃস্পতিবার বিকেল থেকে শুক্রবার পর্যন্ত ভিকটিমকে বেশ কয়েক বার ধর্ষণ করে।

কলেজ শেষে ভিকটিম হোসটেলে  না ফেরায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে রমনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করার পর পুলিশে ৯৯৯নম্বরে ফোন করে বিষয়টি অবগত করেন। পরে ৯৯৯থেকে ভালুকা মডেল থানায় অবগত করা হয় ভিকটিম তেপান্তর স্যুটিং স্পটে রয়েছেন। শুক্রবার সকালে ভিকটিমের বোন জামাই তোফায়েল হোসেনকে সাথে নিয়ে ভালুকা মডেল থানার এস,আই রুহুল আমীন ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে এবং আরাফাত শেখ অভিকে আটক করে।

পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করলে সে নিজেকে সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন হিসাবে পরিচয় দিয়ে একটি পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে। পরে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রকৃত পরিচয়দেয় দেয় সে সেনাবাহিনীর সৈনিক। সৈনিক নম্বর ৪০৫০১৬১ ইউনিট ৬১বেঙ্গল সিলেট।এ ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন (যার নম্বর-৮ তারিখ ০৬.০৩.২০২০ইং)। পরে পুলিশ গ্রেফতারকৃত অভিকে আদালতে প্রেরণ করে।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ পরিদর্শক মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, ৯৯৯নম্বর থেকে কল আসে ভালুকার তেপান্তরে একটি মেয়ে আটক আছে। পরে ভিকটিমের বোন জামাইকে নিয়ে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার কর। এ ঘটনায় ৯(১) তৎসহ ১৭০ধারায় একটি মামলা হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৫৩৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই