তারিখ : ২০ জানুয়ারী ২০২১, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গৌরীপুরে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার-২

গৌরীপুরে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার-২
[ভালুকা ডট কম : ২৩ নভেম্বর]
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নে এক কলেজ ছাত্রীকে কিন্ডারগার্টেনে নিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন খান জানান, এ ঘটনায় শনিবার (২১ নভেম্বর) গৌরীপুর থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্তদের (২২ নভেম্বর) রবিবার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উপজেলার কুমুরিয়া পূর্বপাড়ার মোঃ আইয়ুব আলী ফকিরের ছেলে মোঃ নাঈম ফকির (২৪) এর সঙ্গে মুঠোফোনে প্রায় এক বছর যাবত কথাবার্তা চলছিলো। এক পর্যায়ের উভয়ের মাঝে প্রেমের সঞ্চার ঘটে। শুক্রবার (২০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে নাঈম ফকির (২৪) ভিকটিমকে মোবাইলে কল দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে আসে। এরপর তার দুই সহযোগী একই এলাকার (ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উপজেলার কুমুরিয়া পূর্বপাড়ার) মৃত আলাল উদ্দিনের ছেলে মোঃ রায়হান উদ্দিন (১৯), মোঃ আবু সাঈদের ছেলে মোঃ রিয়াদ মিয়া (২০) এর সহযোগিতায় পাশ্ববর্তী প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ভিতরে নিয়ে নাঈম ফকির জোরপুর্বক ধর্ষণ করে। ভিকটিমের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ছুটে এসে নাঈম ফকির ও রায়হান উদ্দিন নামে দু’জনকে মটর সাইকেলসহ আটক করে।

গৌরীপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর মোঃ সামছুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, খবর পেয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার ও  তাদের ব্যবহৃত মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়। পুলিশ কর্মকর্তা জানান, গ্রেফতারকৃতদের রোববার (২২ নভেম্বর) বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হয়। শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই