তারিখ : ২৩ জানুয়ারী ২০২১, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শ্রীপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে মা খুন

শ্রীপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে মা খুন
[ভালুকা ডট কম : ০২ ডিসেম্বর]
গাজীপুরের শ্রীপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে মা রেহেনা খাতুন (৪০) খুন হয়েছে। নিহত রেহেনা ওই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। এ ঘটনায় পুলিশ ছেলে ইয়াসীন আরাফাতকে (১৬) গ্রেপ্তার করেছে। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের সোনাব (পশ্চিম পাড়া) গ্রামে নিহতের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসেন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কাওরাইদ ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম ঢালী জানান, রেহেনা খাতুন সকালে বাড়ির উঠানে রোদে ধান শুকাচ্ছিল। এসময় ছেলে ইয়াসীন আরাফাত তার মা’র কাছে একটি ধারালো দা চায়। দা চাওয়ার কথা মা তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে বলে গাছ থেকে ডাব পেড়ে খাবে। তাকে মা দা এনে দিয়ে ধান শুকানোর কাজে লেগে যায়। এসময় ছেলে ইয়াসীন পিছন দিক থেকে তার মায়ের ঘারে দা দিয়ে কুপ দিলে রেহেনা খাতুন মাটিতে পড়ে যায়। পরে সে দা দিয়ে এলাপাতাড়ি কুপিয়ে মা’কে খুন করে।

ইউপি সদস্য আরো জানান, ইয়াসীন আরাফাত বলদীঘাট জে এম সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র। গত কয়েকদিন যাবত সে বাড়ির সকলের সাথে অসংলগ্ন আচরন করছে। মানসিক ভারসাম্যহীন থাকায় সে এ কাজ করেছে। স্থানীয়রা তাকে আটক করে শ্রীপুর থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে।অভিযুক্ত ইয়াসীন আরাফাত জানান, মা’র আত্নার শান্তির জন্য সে তার মা’কে খুন করেছে। তবে এখন তার মা’র জন্য খুব কষ্ট লাগছে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, অভিযুক্ত ছেলে ইয়াসীন আরাফাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই