তারিখ : ২৮ জানুয়ারী ২০২১, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁয় তালিকাভুক্ত না হয়েও কাজীর কর্মকান্ড

নওগাঁয় তালিকাভুক্ত না হয়েও কাজীর কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে কথিত কাজী বেলাল, অভিযোগ দিয়েও ফায়দা মিলছে না
[ভালুকা ডট কম : ২৬ ডিসেম্বর]
সরকারের নীতিমালা অনুয়ায়ী নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে সরকার অনুমোদিত তালিকাভ’ক্ত ৮জন নিকাহ্ (ম্যারেজ) রেজিস্ট্রার রয়েছে। কিন্তু এই তালিকার বাহিরেও ৩মামলার আসামী কথিত কাজী বেলাল হোসাইন (৩৬) নিজেকে বৈধ কাজী হিসেবে জাহির করে বিয়ে সংক্রান্ত অবৈধ কর্মকান্ড চালিয়ে আসার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়াও নিজেকে সরকারী কাজী হিসেবে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাইন বোর্ড ও দেয়াল লিখন করে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারনা করারও অভিযোগের শেষ নেই।

জানা গেছে, উপজেলার বড়গাছা ইউনিয়নের নাজিম উদ্দীনের ছেলে বেলাল হোসাইন এসএসসি পাশ না করেও অন্যের সনদপত্র ঘষামাজা (টেস্পারিং) ও জালিয়াতির মাধ্যমে বড়গাছা ইউনিয়নের নিকাহ (ম্যারেজ) রেজিস্ট্রারের লাইসেন্স গ্রহণ করে। এ ঘটনায় রাণীনগর থানায় একটি মামলা হলে চার্জসিট দাখিল হয়। বাল্য বিবাহ ও কাবিননামার ২লাখ ৫০হাজার টাকা দেনমোহরের স্থলে প্রতারণা ও জালিয়াতি করে ১২লাখ টাকা করায় সি,আর মামলা (নং-০১/১৯,রাণীনগর) হয়। পরে পুলিশ ব্যুরো অব ইভেস্টিগেশন (পিবিআই) নওগাঁর পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম তদন্ত করে ২০১৯সালের ১৯মে ভুয়া কাজী (নিকাহ রেজিষ্ট্রার) বেলাল হোসাইনসহ ৪জনকে অভিযুক্ত করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নওগাঁ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

নওগাঁ জেলা রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা গেছে, রাণীনগর উপজেলার ৮ ইউনিয়নে  সরকার অনুমোদিত ৮জন নিকাহ (ম্যারেজ) রেজিস্ট্রার ও তাদের নির্দিষ্ট অধিক্ষেত্র রয়েছে। তাদের অধিক্ষেত্র ও নাম যথাক্রমে ১নং রাণীনগর সদর ইউপিতে এটিএম রেজাউল করিম (নজরুল), ২ নং কাশিমপুর ইউপিতে মোজ্জাফর হোসেন, ৩নং গোনা ইউপিতে আইয়ুব আলী, ৪নং পারইল ইউপিতে আবুল হাসান, ৫নং বড়গাছা ইউপিতে শাহজাহান আলী, ৬নং কালিগ্রাম ইউপিতে হেলাল উদ্দীন, ৭নং একডালা ইউপিতে মতিউর রহমান ও ৮ নং মিরাট ইউপিতে মোবারক হোসেন। কিন্তু কাজী বেলাল বড়াগাছা ইউনিয়নের বাসিন্দা হলেও পরবর্তীতে ২নং কাশিমপুর ইউনিয়নে ভোটার তালিকায় নাম অর্ন্তভ’ক্ত করে আগের তথ্য গোপন করে পুনরায় ওই নিকাহ রেজিস্ট্রারের লাইসেন্স সংগ্রহ করে। পরে উচ্চ আদালত সেই লাইসেন্সসহ তার সকল কার্যক্রম স্থগিত করেন। কিন্তু তারপরেও বেলাল হোসাইন নামের ওই ব্যক্তি উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নিজেকে সরকারী কাজী হিসেবে প্রচারের জন্য সাইন র্বোড ও দেওয়াল লিখন করেছে। সাধারণ মানুষ না বুঝেই এই প্রতারকের ফাঁদে পা দিয়ে প্রতারিত, পারিবারিক অশান্তি ও মামলার সৃষ্টি হচ্ছে। কয়েক জন অসাধু ব্যক্তি বর্গের পৃষ্ঠাপোষকতায় অজ্ঞাত স্থান থেকে বালাম বই সংগ্রহ করে বছরের পর বছর অবৈধ ভাবে কর্মকান্ড চালানোর অভিযোগ রয়েছে কাজী বেলাল হোসাইনের বিরুদ্ধে। ২০১৫ সালের ৮ডিসেম্বর নওগাঁ জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. মোঃ আমিনুর রহমান এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেলাল হোসাইনের বৈধতা নেই এবং অধিকাংশ বাল্য বিবাহ। পালিয়ে আসা ছেলে মেয়েদের কাজী বেলাল বিবাহ রেজিস্ট্রেশন করে থাকে।

উপজেলা নিকাহ রেজিষ্ট্রার ও কাজী সমিতির সভাপতি এটিএম রেজাউল করিম বলেন বেলালের অবৈধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে দপ্তরে দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিতে দিতে আমরা হাপিয়ে উঠেছি। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোন দৃশ্যমান পদক্ষেপ চোখে পড়েনি। অর্থের বিনিময়ে কথিত কাজী বেলাল সবকিছুই ম্যানেজ করে আসছে। যার কারণে আমরা হাল ছেড়ে দিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন সরকারি তালিকার বাহিরে কোন ব্যক্তি নিকাহ সংক্রান্ত কোন কাজ করার বৈধতা রাখে না। বেলালের এই সব অবৈধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

জেলা রেজিস্ট্রার আব্দুস সালাম বলেন, রাণীনগর উপজেলার কাজীদের সরকারি তালিকায় বেলাল হোসাইন নামের কোন ব্যক্তির নাম নেই। কিন্তু দীর্ঘদিন যাবত কথিত কাজী বেলাল কিভাবে কোন শক্তির জোড়ে নিকাহ সংক্রান্ত অবৈধ কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে তা আমার জানার বাহিরে। এই সব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষমতাও আমার হাতে নেই। এদের হাত অনেক লম্বা।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই