তারিখ : ২৫ জানুয়ারী ২০২১, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে নজিপুর পৌর নির্বাচনের প্রচার

শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে নজিপুর পৌর নির্বাচনের প্রচার-প্রচারনা
[ভালুকা ডট কম : ০৯ জানুয়ারী]
নওগাঁর নজিপুর পৌরসভায় বইছে ভোটের হাওয়া। আগামী ১৬ জানুয়ারী ইভিএমের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁর নজিপুর পৌরসভা নির্বাচন। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই শীতের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে নির্বাচনী উত্তাপ। করোনা আর শীতকে পেছনে ফেলে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন এবং দিচ্ছেন নানা ধরনের প্রতিশ্রুতি।

শহরের অলিগলির সকল সড়কেই প্রচারণায় ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের পোস্টার-ব্যানারে। পৌর নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো পৌর এলাকা। মাইকিং ছাড়াও চলছে সোশ্যাল মিডিয়াতে নির্বাচনী প্রচারণা। নির্বাচনী এলাকায় প্রতিটি পাড়া মহল্লায় ও চা ষ্টলগুলোতে সর্বত্রয় চলছে নির্বাচনী আলাপ আলোচনা।যতই দিন ঘনিয়ে আসছে ততই যেন প্রার্থী ও সমর্থকদের ব্যস্ততা বেড়েই চলেছে। শীতকে উপেক্ষা করেই চলছে নির্বাচনী প্রচারনা ও কর্মী সভা। তাই প্রতিদিনের মতই সকাল থেকে রাত অবধি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্রতীক সম্মিলিত মার্কা দিয়ে ভোট ও দোয়া কামনা করছেন।

দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য নজিপুর পৌর নির্বাচনে এবারই প্রথম ইভিএম ব্যবহার হওয়ায় ভোটারদের মাঝে কৌতুহল বিরাজ করছে। এই নির্বাচনে মেয়র পদে দুইজন, কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন এবং মহিলা কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী মোট ৫০জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মেয়র পদে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী রেজাউল কবির চৌধুরী বাবু বলেন, পৌরবাসী আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করলে আমি পৌরসভার নতুন ভবন নির্মাণ কাজ শেষ করে একটি নানন্দিক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন মডেল পৌরসভা হিসাবে গড়ে তুলবো। আর আমি আশা করছি পৌরবাসী আমাকে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত করে আমার অসম্পন্ন কাজগুলোকে সম্পূন্ন করা এবং বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখবার সুযোগ দেবেন।

অপরদিকে বি.এন.পি সমর্থিত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন বলেন আমাকে পৌরবাসী মেয়র হিসাবে নির্বাচিত করলে পৌরসভার রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা সহ অন্যান্য উন্নয়ন কাজ তরান্নিত করে একটি মডের পৌরসভা হিসাবে গড়ে তোলবো।

এছাড়া সংরক্ষিত আসনে মহিলা কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী ও সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রার্থীরাও এখন প্রচার-প্রচারনায় বাস্ত সময় পার করছেন। পুরো নজিপুর পৌর এলাকায় অলি-গলি ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের পোস্টার ও ব্যানারে। আর মাত্র কয়েকদিন পরেই শেষ হচ্ছে প্রচার-প্রচারণা। আর তাই শেষ মুহূর্তে ভোটারদের কাছে দৌড়ঝাঁপ আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রার্থীরা। নির্বাচনীকে ঘিরে শীতকে উপেক্ষা করে সকাল থেকে রাত অবধি প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন এবং নানা ধরনের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। সব কিছু মিলিয়ে সরগম হয়ে উঠেছে নজিপুর পৌর এলাকা। পুরো এলাকায় যেন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

নির্বাচন অফিস সুত্রে জানাগেছে ১১.৮১ বর্গ কিলোমিটারের এ পৌরসভায় প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের বসবাস হলেও ভোটার সংখ্যা ১৬ হাজার ৯০৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮১৭৭ জন ও মহিলা ভোটার ৮৭২৮ জন এবং আগামী ১৬ জানুয়ারী ৯টি ভোট কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে অনুশীলনমূলক (মক) ভোট অনুষ্ঠিত হবে ১৪ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ চত্বরে। পত্নীতলা নির্বাচন অফিসার জাহিদুর রহমান বলেন, এই অনুশীলন ভোটদানের মাধ্যমে ভোটারদের ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) সঙ্গে পরিচয় করে দেওয়া হবে। কীভাবে ইভিএমে ভোট দেওয়া যায়, তা শিখতে পারবেন ভোটাররা।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০১ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই