তারিখ : ১৯ জানুয়ারী ২০২১, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

তজুমদ্দিনে খাবারে নেশা মিশিয়ে চুরি

তজুমদ্দিনে খাবারে নেশা মিশিয়ে চুরি
[ভালুকা ডট কম : ১৪ জানুয়ারী]
ভোলার তজুমদ্দিনে রাতের খাবারের সাথে নেশা জাতীয়দ্রব্য অচেতন করে নগদ টাকা ও মোবাইলসহ ঘরের মালামাল করে নিয়ে যায় অজ্ঞাতনামা চোরেরা। এঘটনায় অচেতন ৫জনের মধ্যে ২ জনকে তজুমদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সুত্রে জানা যায়, বুধবার (১৩ জানুয়ারী) দিবাগত রাতে উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের গোলকপুর গ্রামের কুট্টি মিয়া হাওলাদার বাড়ির জিয়াউল হক হাওলাদারের ঘরে রাতের খাবারের সাথে অজ্ঞাতনামা দুষ্কৃতিকারীরা নেশা জাতীয়দ্রব্য মিশিয়ে দেন। পরে রাতের কোন এক সময় তাদের কেয়ারটেকারসহ পরিবারের ৬ সদস্যের মধ্যে ৫জন নেশা মেশানো খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে পড়লে দুষ্কৃতিকারীরা ঘরে ডুকে মোবালইল ফোন ও নগদ টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়। পরে জিয়াউল হকের মেয়ে মুনিয়া ও স্ত্রী নুর জাহান বেগম টের পেয়ে ডাকচিৎকার দিলে দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়।

অচেতনরা হলেন, মোঃ জিয়াউল হক হাওলাদার (৭০), তার কেয়ারটেকার আঃ মালেক (৬৫), মেয়ে সোনিয়া আক্তার (৩০), ছেলে সাইফুল ইসলাম দিপু (৩২) ও মেয়ের জামাই মোঃ শাহিন মাষ্টার (৩৫)। পরে স্থানীয়রা অচেতনদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে জিয়াউল হক হাওলাদার ও আঃ মালেককে তজুমদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি করেন।

তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জিয়াউল হক বলেন, ঘটনা শুনার পর ঘটনাস্থল পরির্শন করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার লিখিত অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই