তারিখ : ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁ পৌরসভার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর নির্বাচনী ইশতেহার

নওগাঁ পৌরসভার স্বতন্ত্র প্রার্থী ইকবাল শাহরিয়ারের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা
[ভালুকা ডট কম : ১৮ জানুয়ারী]
নওগাঁ পৌরসভাকে একটি আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবে গড়ে তোলাসহ নানা উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পৌর নির্বাচনের ইশতেহার দিয়েছেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল। সোমবার বিকেলে শহরের বাঙ্গাবাড়িয়া এলাকায় তাঁর নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে এ ইশতেহার ঘোষণা করেন তিনি।

মেয়র প্রার্থী ইকবাল শাহরিয়ার সংবাদ সম্মেলনে লিখিত ইশতেহার পড়ে শোনান। তিনি বলেন, নির্বাচনের মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করতে নানা কাল্পনিক প্রতিশ্রুতি তুলে ধরে কথামালার ফুলঝরি ঝরাচ্ছেন। আমি তাঁদের মতো অবাস্তব প্রতিশ্রুতি দিতে চাই না। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে সর্বপ্রথম পৌরবাসীর কাছে এ কথা প্রমাণ করব যে আমি তাঁদেরই লোক। এ শহরের বাসিন্দা হিসেবে পৌরবাসীর সকল সমস্যা বুঝি এবং সেসব সমস্যা সমাধানের জন্য দিন-রাত কাজ করে যাব।

নওগাঁ পৌরবাসীর নাগরিক সেবার মান যুগোপযোগী করার প্রতিশ্রুতি তুলে তিনি তাঁর ইশতেহারে উল্লেখ করেন, পৌরবাসীর আকাঙ্খিত আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন শহর গড়ে তোলাই তাঁর প্রধান লক্ষ্য। বাসিন্দাদের সমস্যা জানার জন্য একটি হেল্পলাইন করা হবে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার উদ্দেশ্যে পুরো পৌরসভা সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে। পৌরসভায় পরিচ্ছন্ন বিনোদন ব্যবস্থা, মানসিক স্বাস্থ্য ও শারিরীক সুস্থতা বিকাশে পৌরসভা থেকে উদ্যোগ নেওয়া হবে। শহরে সন্ত্রাস দমন, মাদক নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতে সরকারি কার্যকর স্বতন্ত্র কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচনী কোনো সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। মেয়র পদে মনোনয়ন তোলার পর থেকেই তিনি নানান বাধা-বিঘ্নের শিকার হচ্ছেন। নওগাঁর নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল দুই দফা তাঁর প্রার্থীতা বাতিল করেন। পরবর্তীতে হাইকোর্টে মামলা করে আনুষ্ঠানিক শুরুর পাঁচদিন পর আদালতের নির্দেশে প্রার্থীতা ফিরে পান। এদিকে প্রচারণা শুরুর পর থেকে কয়েক দফা তাঁর প্রচার মাইক ও গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে। তাঁর কর্মী ও সমর্থকদের তাঁর পক্ষে প্রচার-প্রচারণা না চালানো জন্য হুমকি-ধামকি দেওয়া হচ্ছে। তাঁর প্রচার-প্রচারণায় কোন প্রার্থী বাধা-বিঘ্ন সৃষ্টি করছে এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি সরাসরি নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, এ প্রশ্নের উত্তর সবাই জানে। আমি ও বিএনপির প্রার্থীর নির্বাচনী ভাঙচুর করা হয়েছে। এছাড়া পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় নারিকেল গাছ ও ধানের শীষের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। এ অবস্থায় সহজেই অনুমেয় এটা করা করছে?’

ইকবাল শাহরিয়ার নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি নওগাঁ শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি। তাঁর দলীয় কোনো পরিচয় না থাকলেও আওয়ামী লীগের সমর্থক হিসেবে পরিচিত এবং সম্প্রতি হয়ে যাওয়া জেলা যুবলীগের কাউন্সিলে সভাপতি প্রার্থী ছিলেন। মেয়র পদে অপর দুই প্রার্থী হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নির্মল কৃষ্ণ সাহা ও বিএনপির প্রার্থী নজমুল হক সনি। তাঁরা এখনও তাঁদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেননি। আগামী ৩০ জানুয়ারি নওগাঁ ব্যালটের মাধ্যমে নওগাঁ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই