তারিখ : ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁয় বন্যায় নষ্ট হওয়া রাস্তা এখনোও হয়নি মেরামত

নওগাঁয় বন্যায় নষ্ট হওয়া রাস্তা এখনোও মেরামত হয়নি,চরম দুর্ভেগে এলাকাবাসী
[ভালুকা ডট কম : ০৩ এপ্রিল]
নওগাঁর আত্রাইয়ে বন্যায় ভেঙ্গে যাওয়া একমাত্র পাকা রাস্তা মেরামত না করায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এলাকাবাসী। গতবছর বন্যায় উপজেলার বেশ কয়েকটি স্থানে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ পাকা সড়ক ভেঙ্গে যায়। বন্যার পানি নেমে যাবার পর দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও ভেঙ্গে যাওয়া পাকা রাস্তা মেরামতের কোন উদ্যোগ গ্রহন করা হয়নি। ফলে চলাচলের ক্ষেত্রে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

জানা যায়, ২০২০সালের একাধিক ভয়াবহ বন্যায় উপজেলার মধুগুড়নই হয়ে পাঁচুপুর চারমাথা পর্যন্ত পাকা রাস্তার পাঁচুপুর পালপাড়া নামক স্থানে ভেঙ্গে যায়। ওই রাস্তা ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। সে সময় থেকেই মালিপুকুর, পাঁচুপুর, মধুগুড়নইসহ বেশ কয়েক গ্রামের লোকজনের যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যায়। উপজেলার একটি উল্লেখ যোগ্য স্থান পাঁচুপুর বাজার। এখানে একটি প্রাত্যহিক বাজার, একটি সরকারী স্বাস্থ্যকেন্দ্র, একটি উচ্চ বিদ্যালয়, একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কিছু জনগুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। বিশেষ করে সেখানে হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজার জন্য রয়েছে বৃহৎ একটি কালিবাড়ি। এ ছাড়াও সেখানে রাইচ মিল, স’মিল, ব্রেড ফ্যাক্টরীসহ ছোট ও মাঝারি বেশ কয়েকটি কারখানাও রয়েছে। যে কারনে এলাকার শত শত লোকজন প্রতিনিয়ত পাঁচুপুরে যাতায়াত করে থাকেন। বন্যায় ভেঙে যাওয়া রাস্তা দীর্ঘদিন থেকে মেরামত না করায় তাদেরকে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

পাঁচুপুরগ্রামের করিম, হালিমসহ অনেকেই বলেন, এই ভাঙ্গা মেরামত না হওয়ায় রাস্তা দিয়ে ভ্যানসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় ছোট ছোট যানবাহন চলাচল করছে না। প্রতিদিনই আমাদের চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে।

শিকারপুর গ্রামের রহিমা খাতুন বলেন, আমাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ করার জন্য এবং জরুরী চিকিৎসা সেবা নিতে এই ভাঙ্গা অংশটুকু পার হওয়া অনেক কষ্টের। তাই অনেকেই চিকিৎসার অভাবে কষ্টে দিনানিপাত করছে। কোন ডাক্তারকে নিয়ে আসলে তারা দ্বিগুন ভিজিট নেয়।

আত্রাই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পাঁচুপুর গ্রামের অধিবাসী আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, ২০১৭সালের বন্যায় এ রাস্তাটির এখানেই ভেঙ্গে ছিল। পরবর্তীতে বালু ভরাট দিয়ে তা মেরামত করা হয়েছিল। ২০২০সালে একাধিকবার বন্যায় একই জায়গায় ভেঙ্গে যায়। বন্যার পানি শুকিয়ে যাবার দীর্ঘদিন পরও রাস্তাটি মেরামতের কোন উদ্যোগ না নেয়ায় আমরা খুব দুর্ভোগের শিকার হচ্ছি।

পাঁচুপুর ইউপি চেয়ারম্যান আফছার আলী প্রাং বলেন, রাস্তাটি মেরামতের জন্য একাধিকবার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। প্রয়োজনীয় বরাদ্দ পেলে এটি সংস্কার করা হবে।এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার মাকসুদুল আলম বলেন এই রাস্তাসহ অন্যান্য এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তার বিস্তারিত প্রতিবেদন উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়েছি। বরাদ্দ এলেই মেরামতের কাজ শুরু করা হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই