তারিখ : ১৫ মে ২০২১, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

ভালুকায় পপুলার হসপিটালে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ
[ভালুকা ডট কম : ০৬ এপ্রিল]
ভালুকা উপজেলার মাস্টারবাড়ি পপুলার হসপিটাল নামে একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় আমেনা খাতুন (৬৫) নামে এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ি এলাকায়।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয় জানা যায়, উপজেলার দক্ষিণ হবিরবাড়ি গ্রামের মৃত মোতালেবের স্ত্রী আমেনা খাতুনকে বুকের ব্যথা নিয়ে মাস্টারবাড়ি পপুলার হসপিটালে ভর্তি করা হয়। পরে রোগীকে ইসিজি করে হাসপাতালের ডাক্তার সৌরভ কুমার সাহার নির্দেশে জনৈকা এক নার্স রোগীকে ইনজেকশন পোশ করেন। ইনজেকশন পোশ করার সাথে সাথেই রোগী মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়েন। ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন হাসপাতাল ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করলে খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিততি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার পর ডাক্তার সৌরভ কুমার সাহা হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে যান।

অপর একটি সূত্র জানায়, হাসপাতালটির লাইসেন্সের জন্য অনলাইনেও আবেদনই করেনি। হাসপাতালটিতে ল্যাব পরীক্ষার টেকনেশিয়ান ছাড়াই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রোগীদের  প্রতারণারসহ হাসপাতালটিতে অবৈধ এম আর, ডিএনসি ও অবৈধ গর্ভপাতের অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার পর মডেল থানা ওসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে হাসপাতালে লাইসেন্স,চেম্বার ডাক্তার ও কর্মরত টেকনেশিয়ানদের কাগজপত্রসহ ঘর ভাড়া চুক্তিপত্র চাইলে তারা কোনো কাগজপত্রই দেখাতে পারেননি।

নিহতের পরিবারের লোকজন জানান, হাসপাতালের ডাক্তার সৌরভ কুমার সাহার নির্দেশে রোগীকে ইনজেকশন দেয়ার সাথে সাথেই তিনি মারা যান। স্থানীয় লোকজন জানান, রোগীদের চোখে ধুলা দেয়ার জন্য কোনো প্রকার লাইসেন্স ও অনুমোদন ছাড়াই পরিচালিত করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে অসহায় রোগীদের কাছ থেকে।

হাসপাতালের মালিক নজরুল ইসলাম জানান, নিহত আমেনা খাতুনের ইসিজি করার পর দু’টি ইনজেকশন দেয়া হলে আধা ঘন্টা পর তিনি মারা যান। হসপিটালটির লাইসেন্স প্রক্রিয়াধিন রয়েছে বলে তিনি জানান।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। পরে আলোচনা শেষে পরিবারের পক্ষ কোনো অভিযোগ না করায় নিহতের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।ভালুকা ৫০ শয্যা সরকারী হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার মাহফুজা বেগম জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে ঘটনাটি খোঁজ নিয়ে দেখছি।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই