তারিখ : ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় বোরো ধানে চিটা দিশেহারা শত শত কৃষক

ভালুকায় বোরো ধানে চিটা দিশেহারা শত শত কৃষক
[ভালুকা ডট কম : ০৭ এপ্রিল]
ভালুকার বিভিন্ন গ্রামে শত শত হেক্টর জমির বোরো ধান মরে চিটা হওয়ায় ফসল হানির কারনে দিশেহারা হয়ে পরেছে এলাকার শত শত কৃষক পরিবার। অনেকেই মরা ধান ক্ষেতে দাড়িয়ে হাহুতাশ করে চলেছেন।

০৭এপ্রিল বুধবার সরজমিন উপজেলার ধীতপুর ইউনিয়নের ধীতপুর, টুংরাপাড়া, শান্তিগঞ্জ এলাকার কৃষকদের সাথে কথা বলে জানাযায় ক্ষেতে ধানের শিষ গুলিতে কোন চাল বা দুধ কিছুই নেই শুধু চিটা গুলি সাদা হয়ে রয়েছে।

টুংরাপাড়া গ্রামের কৃষক দুলাল মিয়া জানান সুতিয়া নদীর পাড় সামাকালীর বন্ধে তার ৮ কাঠা জমির সম্পুর্ণ ধান মরে চিটা হয়ে আছে। তিনি প্রতি বছর ৪০/৪৫ মণ ধান মাড়াই করেন এ বছর এক ছটাক ধানও ঘরে নিতে পারবেননা। ছেলে মেয়ে নিয়ে উপোষ করা ছারা উপায় নেই। বোরো আবাদে তিনি ৮ কাঠা জমিতে ১২ হাজার টাকার মত খরচ করে ছিলেন।

একি বন্ধে কৃষক নজরুল মিয়া ১০ কাঠা জমিতে বোর আবাদ করেছেন তারও সম্পুর্ণ ধান চিটা হয়ে ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি ১০ কাঠা জমিতে ১৬ হাজার টাকা খরচ করেছেন যা থেকে এক ছটাক ধানও পাবেননা। একই এলাকার কৃষক সাইদুল সরকারের দেড় একর, কাজল সরকারের এক একর, আতা মিয়ার এক একর, তাইজদ্দীনের ১০ কাঠা, ভূট্রো মিয়ার  এক একর, জবান মাষ্টারের ৪ কাঠা, ইসমাইল হোসেনের ৫ কাঠা, আমির হোসেনের ৫ কাঠা, রফিকুল ইসলামের এক একর, সাবেক মেম্বার সারোয়ার আলমের ৮ কাঠা, এমদাদুলের ৮ কাঠা, সুরুজ মিয়ার দেড় একর, মৌফিজ মিয়ার দুই একর, মনু মিয়ার ১৩ কাঠা, আফতাব উদ্দীনের ১০ কাঠা,  আলামীনের ১২ কাঠা, রাসের মিয়ার ৫ কাঠা সহ ওই এলাকা সহ পানিহাদী, ধীতপুর ও শান্তিগঞ্জ গ্রামের কয়েকশ কৃষকের ধান মরে চিটা হয়ে আছে।

কৃষক সুরুজ মিয়া জানান অনেকে চিটা ধান কেটে গোখাদ্য হিসাবে বাজারে বিক্রি করছেন। শান্তিগঞ্জ বড় বিলার কৃষক রইছ উদ্দীন সরকারের ৪ একর, রফিকুল ইসলামের ৪ একর, নওসের আলী রুবেল সহ বহু কৃষকের ধান মরে সাদা চিটা হয়ে গেছে।

টুংরাপাড়া গ্রামের সাবেক মেম্বার সারোয়ার আলম জানান ধানের চিটা হওয়ার কারনে ওই এলাকার কৃষকদের মাঝে একটি দুর্যোগ নেমে এসেছে, কোন কৃষকই এক ছটাক ধান ঘরে তুলতে পারবেননা। তিনি এলাকাবাসীর পক্ষ হতে সরকারের সুদৃষ্টির দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপ সহকারী উদ্বিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা এনামুল হক জানান গত ৪ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬ ঘটিকার সময় উপজেলার উপর দিয়ে গরম ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার কারনে সমগ্র এলাকায় কিছু কিছু অংশে বোরো ধানের সামান্য ক্ষতি সাধন হয়েছে যা প্রতিবেদন আকারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই