তারিখ : ১৬ মে ২০২১, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

করোনা ভ্যাকসিন পেতে চীনের কাছে ধর্না

করোনা ভ্যাকসিন পেতে চীনের কাছে ধর্না
[ভালুকা ডট কম : ২৬ এপ্রিল]
ভারতে উৎপাদিত করোনা ভ্যাক্সিন কেনার জন্য চুক্তি করে অগ্রিম মূল্য  পরিশোধ করেও সময়মত সরবরাহ না পেয়ে সঙ্কটে পড়েছে দেশ। ইতোমধ্যে, দেশে ৫৭ লাখ মানুষকে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। ১৯ লাখকে দেওয়া হয়েছে দ্বিতীয় ডোজ। এখন টিকার যে মজুত আছে, তা ১৫ দিনের মধ্যে ফুরিয়ে যেতে পারে। এর ফলে দ্বিতীয় ডোজ সম্পূর্ণ করাই চালেঞ্জ হয়ে পড়েছে। এর পর বাকিদের জন্য নতুন ডোজ দেবার বিষয়টিও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

এ অবস্থায় জরুরি সংকট মোকাবিলায় অন্তত ৫ থেকে ১০ লাখ টিকা সংগ্রহের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে সরকার। জরুরি ভিত্তিতে করোনার টিকা পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গেও যোগাযোগ করছে সরকার।টিকা কেনার আগ্রহ জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক গত শনিবার ঢাকাস্থ চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিংকে পত্র পাঠিয়েছেন। পত্রে, দুই দেশ টিকার ক্ষেত্রে সম্পর্ক ও সহযোগিতা বাড়ানোর আগ্রহ দেখিয়েছে বাংলাদেশ।

ভারত থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা তৈরি হওয়ার পরই মূলত সরকার চীন থেকে টিকা পাওয়ার চেষ্টা শুরু করল।এর আগে গত বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দক্ষিণ এশিয়ায় টিকার জরুরি মজুত গড়তে চীনের উদ্যোগে গঠিত একটি ফোরামে যোগ দেওয়ার সম্মতির কথা জানায়।

উল্লেখ্য, চীন গত বছরের সেপ্টেম্বরেই তাদের দেশে উদ্ভাবিত দু’রকম টিকা পরীক্ষার জন্য বাংলাদেশকে প্রস্তাব দিয়েছিল এবং ৫ লাখ ডোজ উপহার হিসেবে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু বাংলাদেশ চীনের সে প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে  ভারত থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কেনার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। কেনা ছাড়াও বাংলাদেশকে প্রায় ৩৩ লাখ ডোজ উপহারও দিয়েছে ভারত।#     



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই