তারিখ : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গৌরীপুরে স্কুলের দায়সারা সংস্কার ও মেরামতের কাজ

কঠোর বিধিনিষেধের সময়
গৌরীপুরে স্কুলের দায়সারা সংস্কার ও মেরামতের কাজে ক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা
[ভালুকা ডট কম : ২৮ জুলাই]
করোনাকালে সরকারের কঠোর বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আর.কে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে জমিদার আমলে নির্মিত স্কুল ভবন সংস্কার ও মেরামতের কাজ চলছে দায়সারাভাবে। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে এ কাজের তদারকি না থাকায় জনৈক ঠিকাদার তাঁর ইচ্ছেমত কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে মেরামত ও সংস্কার কাজের বিস্তারিত তথ্য জানেনা স্কুল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন। এনিয়ে স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

স্কুলের প্রাক্তন কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান,  গৌরীপুরের জমিদার রাজেন্দ্র কিশোরের নামে এ বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয় ১৯১১ সনে। জমিদার আমলে নির্মিত স্কুলের এ দৃষ্টিনন্দন ভবনটি গৌরীপুরের ইতিহাস ঐতিহ্যের পরিচয় বহন করে আসছে। সরকারের কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে ফাঁকা স্কুলে জনৈক ঠিকাদার দায়সারাভাবে এর সংস্কার ও মেরামতের কাজ করে যাচ্ছেন।তাদের অভিযোগ দেয়ালে কোন সংস্কার ও মেরামত ছাড়াই শ্যাওলার উপর চলছে রঙের কাজ। কোন তদারকি নেই এ কাজের, নেই কোন তথ্যের সাইনবোর্ড।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্কুলের প্রধান শিক্ষক লুৎফা খাতুন সাংবাদিকদের স্কুলের এ সংস্কার ও মেরামত কাজের বিস্তারিত তথ্য দিতে পারেননি। তিনি শুধু জানান, এ কাজটি শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী হাসান মারুফ জানান, স্কুলের এ মেরামত ও সংস্কার কাজের মান খারাপ হওয়ায় স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ময়মনসিংহ শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করার পর তিনি এ বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন বলে জানান তিনি। #



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

শিক্ষাঙ্গন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১৮ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই