তারিখ : ২৬ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় বন বিভাগের উচ্ছেদ অভিযান

ভালুকায় বন বিভাগের উচ্ছেদ অভিযান,প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
[ভালুকা ডট কম : ০৫ অক্টোবর]
ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ি রেঞ্জের আওতায় জামিরদিয়া মৌজার ৬৭নং দাগে মঙ্গলবার দুপুরে বন বিভাগের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ অভিযান হয়েছে। ওই উচ্ছেদ অভিযানের প্রতিবাদে হাজী বেলাল ফকির এক সংবাদ সম্মেলনের করেন।

জানাযায়, এজিসি স্পিনিং লিঃ ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল গাফফার চৌধরীর পক্ষে সাইফুল ইসলাম ময়মনসিহের জেলা সহকারী জজ আদালতে  জামিরদিয়া মৌজার ৬৭ দাগে  অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে বন বিভাগকে বিবাদী করে একটি মামলা (মো: নং ১৪১/২০১৩ অন্য প্রকার) করেন। সেই মামলায় উভয়পক্ষকে ওই জমিতে স্থিতি অবস্থা জারি করা হয়। পরবর্তীতে ওই জমিতে বন বিভাগের বিরুদ্ধে ১৪৪ধারা জারির জন্য আব্দুল গাফফার চৌধরীর পক্ষ থেকে অপর একটি মামলা করলে আদালত বন বিভাগের বিরুদ্ধে ১৪৪ধারা জারি করে। পরবর্তীতে বন বিভাগের আপিলের প্রেক্ষিতে আদালত ১৪৪ধারা  আদেশটি বাতিল করেন। পরবর্তীতে বন বিভাগ  ওই জমিতে উচ্ছেদ অভিযানের জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেটের কাছে একটি আবদেন করলে তিনি ওই দাগে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানের আদেশ দেন। সেই আদেশের প্রেক্ষিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)  আব্দুল্লাহ আল বাকিউল বারী নেতৃত্বে মঙ্গলবার দুপুরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচলনা করেন। এ সময় তাঁকে সহযোগীতা করেন এসিএফ আবু ইউসুফ, এসিএফ প্রাণতুষ চন্দ্ররায় ও হবিরবাড়ির ভারপ্রাপ্ত রেঞ্জার মহিউদ্দিন।

এ ঘটনরা প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক হাজী বেলাল ফকির এক সংবাদ সম্মেলন করেন। তিনি দাবী করেন, শত বছর যাবত আমরা ওই জমি ভোগ দখল করে আসছি। ওই জমিতে বন বিভাগের বিরুদ্ধে আদালত আগামী ২০২২সাল পর্যন্ত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারীর আদেশ থাকার পরও মামলার বিষয়টি বন বিভাগের লোকজন গোপন করে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেটের কাছ থেকে একটি উচ্ছেদ অভিযানের আদেশ আনেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন, এ এলাকায় নতুন করে কেউ বাড়ি ঘর করলে তাদের কাছ থেকে বনের মামলার ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। এই ঘটনার প্রতিবাদ করায়, দেওয়ান আলী উচ্ছেদের ঘটনাটি ঘটিয়েছেন।

হবিরবাড়ির ভারপ্রাপ্ত রেঞ্জার মহি উদ্দিন জানান, আমাদের বিরুদ্ধে আদালত থেকে ১৪৪এর একটি আদেশ এনে বেলাল ফকির গং ওই জমিতে ৩-৪শত ফুট লম্বা সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেন। আদালতে সেই আদেশ স্থগিত করার পর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেটের আদেশের প্রেক্ষিতে এ উচ্ছেদ অভিযান করা হয়েছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল বাকিউল বারী জানান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেট এর এক আদেশে এ উচ্ছেদ অভিযানের জন্য আমাকে ম্যাজিস্টিরিয়াল দায়িত্ব দিয়েছেন। সেই আদেশের প্রেক্ষিতে এ উচ্ছেদ অভিযান করা হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই