তারিখ : ২৬ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বদলগাছী সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে বিরোপ প্রভাব

নওগাঁয় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে গরুর মাংস ভাতের প্যাকেট দিলেন চেয়ারম্যান ফিরোজ
[ভালুকা ডট কম : ১১ অক্টোবর]
নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় সনাতন ধর্মালম্বীসহ সকলকে গরুর মাংস ভাত খাওয়ালেন মিঠাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: ফিরোজ হোসেন। এঘটনায় ইউনিয়নের সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে বিরোপ প্রভাব দেখা দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

গত শুক্রবার বিকালে বদলগাছী উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধিত সভা অনুষ্ঠান শেষে সভায় উপস্থিত সনাতন ধর্মাবলম্বীসহ সকল ব্যক্তিদের মাঝে গরুর মাংস ভাতের প্যাকেট বিতরণ করা হয়। পরে এবিষয়টি জানাজানি হলে ইউনিয়নের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে আলোচনা ও সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

মিঠাপুর ইউনিয়নের বীরমুক্তিযোদ্ধা শ্রী দিলিপ সরকার বলেন, জগপারা গ্রামের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা অনেকে আমার কাছে অভিযোগ করেছেন । মাংস ভাতের প্যাকেট নিয়ে অনেকে বাড়ি চলে গেছেন। এরকমের অভিযোগের পরে সকলকে বলেছি সামনে শারদীয় দূর্গা পুজা চলছে। দূর্গা পুজার পরে অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে বসা হবে বলেও জানান তিনি।

এবিষয়ে শ্রী সুমন কুমার বলেন, আমরা সনাতন ধর্মলম্বী মানুষ আওয়ামীলীগের ভক্ত। ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে জানতে পেয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে ছিলাম । উক্ত অনুষ্ঠান শেষে মাংস ভাতের প্যাকেট নিয়ে চলে আসছিলাম। পরে আমাকে এক ব্যক্তি বলেন এগুলো গরুর মাংস ভাতের প্যাকেট জানতে পেয়ে প্যাকেটটি ফেলে দিয়েছি। কিন্তু অনেকে প্যাকেটের খাবার নিয়ে সাথে সাথে তা খেয়ে ফেলেছেন বলেও জানা গেছে।

মিঠাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আহসান হাবিব বলেন, বর্ধিত সভার আগের দিন আমাকে বলেন খাস্তার প্যাকেট বিতরণ করা হবে। কিন্তু বর্ধিত সভা শেষে সনাতন ধর্মবলম্বীসহ সকলের মাঝে গরুর মাংস ভাতের প্যাকেট বিতরণ করেন। মাংস ভাত বিতরনের বিষয়ে আমার কিছু জানা নাই বলে জানান তিনি।

থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি কিশোর আহমেদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নাই। আমি শুধু বক্তব্য দিয়েছি। তবে খাবার বিষয়ে কি হয়েছে আমার জানা নাই। আমাকে জানতে হবে জানার পরে আপনাকে জানাব বলে ফোনটি কেটে দিয়েছে তিনি।

বদলগাছী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, বর্ধিত সভায় এধরনের খাবার এর আযোজন করা যায় না। মিঠাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নেতাদের সাথে পরামর্শ না করে একক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এই জন্য এই ঘটনাটি ঘটেছে। তিনি আরও বলেন বর্ধিত সভা অনুষ্ঠানে সত্য সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে গরুর মাংস ভাত বিতরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেন বলেন, বর্ধিত সভা অনুষ্ঠানে এরকমের কোনো ঘটনা ঘটেনি। তবে ভুল করে কয়েক জন হিন্দু মানুষের হাতে গিয়েছিল। পরে তাদের ডেকে ভুল শিকার করে সমাধান করেছি। তবে গরুর মাংস ভাত বিতরণ করার বিষয়টি ভুল হয়েছে বলে জানান তিনি।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই