তারিখ : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

পীরের নির্দেশে ২০ বছর জুতা ছাড়া জয়নাল

পীরের নির্দেশে ২০ বছর  জুতা ছাড়া সখীপুরের জয়নাল
[ভালুকা ডট কম : ১৬ নভেম্বর]
টাঙ্গাইলের সখীপুরে দুইবারের ইউপি সদস্য হয়েও ২০ বছর ধরে জুতা ছাড়াই চলছেন জয়নাল আবেদীন (৬৬)। কলেজে চাকরি, দুই দফায় পরিষদের ইউপি সদস্যের দায়িত্ব পালনসহ ব্যক্তি জীবনযাপনের পাশাপাশি জুতা ছাড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন সামাজিক নানা কর্মকাণ্ড। এলাকায় তিনি ‘জুতা ছাড়া মেম্বার’ হিসেবেই পরিচিত।তিনি উপজেলার কাকড়াজান মহানন্দাপুর বাশার চালা গ্রামের মৃত গফুর মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি একজন পোল্ট্রি খাবার বিক্রেতা।

স্থানীয়রা জানায়, ২০ বছর ধরে জুতা ছাড়াই চলাফেরা করছেন জয়নাল মেম্বার। শীত, বর্ষা কোনো সময়ই তিনি জুতা পরেন না। নিজ বাড়ি, অফিস আদালত, মসজিদ, মাদরাসা, মন্দির থেকে শুরু করে সর্বত্রই জুতা ছাড়া চলাফেরা করেন তিনি। এরপরও কখন শুনেনি তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ।

স্থানীয় মসজিদের মুসুল্লি আতোয়ার রহমান জানান, জয়নাল আবেদীন মসজিদে আমাদের সাথে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন। দীর্ঘদিন যাবৎ তাকে জুতা ছাড়াই চলাচল করতে দেখছি। ব্যক্তি হিসেবে ভালো ও জনপ্রিয় হওয়ায় ইতোমধ্যে তিনি দুইবার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারদের সংগঠনের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

জয়নাল আবেদীন বলেন, ২০০০ সালে কালিহাতী উপজেলার ডা. আজহারুল ইসলাম পীরের মুরিদ হন তিনি। তিনিই জুতা ছাড়া চলাফেরা করার নির্দেশ দেন।   সেই নির্দেশ অনুসারেই গত ২০ বছর যাবৎ জুতা ছাড়া চলাফেরা করছি।

তিনি বলেন, জুতা ছাড়া চলাফেরা করতে তার কোনো সমস্যা হয় না। পিচের তৈরি পাকা সড়ক কিংবা কাঁচা সড়কে খালি পায়ে চলে তার পায়ে কখনও ব্যথা পাননি। জুতা ছাড়া চলাফেরা করতে তিনি স্বাছন্দ্য বোধ করেন ও অনেক উপকারও পেয়েছেন। জুতা ছাড়া চলাফেরা করার কারণে বড় ধরনের কোনো রোগব্যাধি হয়নি, কমেনি চোখের জ্যোতিও।

এ বিষয়ে কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. দুলাল হোসেন বলেন, গুরুধরা মানুষ জয়নাল আবেদীন। গুরুর আদেশ মান্য করতেই তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ জুতা ছাড়া চলাফেরা করছেন। ব্যক্তিগতভাবে তিনি খুবই ভালো মানুষ।  হিসেবে চিনি।  জনপ্রিয়তায় তিনি দুইবার  ইউনিয়নের পরিষদের সদস্য নির্বচিত হন।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

পাঠক মতামত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩২৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই