তারিখ : ২১ জানুয়ারী ২০২২, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সান্তাহারে নারী চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছবি এডিট

দলীয় মনোনয়ন ঘোষনার পর থেকেই আওয়ামীলীগে অন্ত:দ্বন্দ্ব শুরু
সান্তাহারে নৌকার নারী চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছবি এডিট করে চলছে নৌকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র
[ভালুকা ডট কম : ০৮ ডিসেম্বর]
বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউপি নির্বাচনে প্রথম বারের মতো একজন নারী চেয়ারম্যান প্রার্থীকে ঘিরে বেশ আলোচনা চলছে। একটি এডিট করা ছবিই সেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে। মনোনয়ন না পেয়ে এই ষড়যন্ত্রে সরাসরি মূখ্য ভুমিকা পালন করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা এরশাদুল হক টুলু। এমন ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চম ধাপে আগামী ৫জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া নির্বাচনে উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে নারী উদ্যোক্তা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সদস্য নাহিদ সুলতানা তৃপ্তিকে (নৌকা প্রতীক) মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। এদিকে মনোনয়ন না পাওয়ায় তার বিরুদ্ধাচারণ শুরু করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা এরশাদুল হক টুলু। গত ২ডিসেম্বর দলীয় মনোনয়ন ঘোষণার পর তিনি এলাকায় ফিরে একটি এডিট করা ছবি পুঁজি করে তার বিরুদ্ধাচারণ শুরু করেন। প্রথমে ওই ছবিতে একটি ক্যাপশন দিয়ে ‘৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৩ সালে রাজাকার আব্দুল মোমিন তালুকদারের নিকট ফুল দিয়ে বিএনপিতে যোগদান করেন নাহিদ সুলতানা তৃপ্তি।

এরপর সেই ছবি স্থানিয় সাংবাদিকসহ বিভিন্ন নেতাকর্মীদের হাতে পৌঁছে দেন। পরে সেই ছবিটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। শুধু তাই নয়, নাহিদ সুলতানা তৃপ্তি বিএনপি’র রাজনীতির সাথে জড়িত এমন অভিযোগ এনে গত সোমবার দলীয় মনোনয়ন বাতিলের দাবীতে সান্তাহার ডাকবাংলোতে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। পরের দিন তিনি স্থানীয় কিছু নারী-পুরুষকে দিয়ে একটি মানববন্ধনও করান। আর এসব কারনে তৃপ্তির বিরুদ্ধে তার ষড়যন্ত্রের বহি:প্রকাশ ঘটেছে।

বর্তমান চেয়ারম্যান এরশাদুল হক টুলু বলেন, তৃপ্তি আগে কখনও আওয়ামীলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। তিনি সাবেক বিএনপির দলীয় সাংসদ ও যুদ্ধাপরাধী আব্দুল মোমিন তালুকদার খোকার কাছে গিয়ে ফুলের তোড়া দিয়ে বিএনপি’তে যোগদান করেন। সম্প্রতি আওয়ামীলীগে ভিড়েছেন। ছবির বিষয়ে তিনি বলেন, ফেসবুকে ছবিটি পেয়েছি। =নৌকার মনোনয়ন পাওয়া নাহিদ সুলতানা তৃপ্তি বলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা সান্তাহার পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রচারনাকালে আমার অফিস আসলে তাদের ফুলের তোরা দিয়ে শুভেচ্ছা জানাই। আর সেই ছবিটি ফেসবুক থেকে নিয়ে তারা এডিট করে আমাকে বিএনপি বানানোর চেষ্টা চালিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। অথচ আমি দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামীলীগ করে আসছি।

উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক নিসরুল হামিদ ফুতু বলেন, তৃপ্তি একজন যোগ্য প্রার্থী। একারনে আমরা তাকে সমর্থন করি। সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে তিনি জয়লাভ করবে ইনশাআল্লাহ। তাছাড়া তৃপ্তির বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে সেসবের কোনো সত্যতা নেই। কেউ নৌকার বিরুদ্ধে গেলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। একই কথা বললেন সান্তাহার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জামিল হোসেন।

জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সান্তাহার ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম মন্টু বলেন, তৃপ্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সদস্য। প্রধানমন্ত্রী তাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। নৌকার জয়লাভের জন্য আমাদের সকলের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করা উচিৎ। অথচ সেখানে নৌকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। ষড়যন্ত্রকারিদের বিরুদ্ধে দ্রুত দলীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

রাজনীতি বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৭৮৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই