তারিখ : ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বদলগাছী থানার ওসিকে আদালতের শোকজ

নওগাঁয় আদেশের পরও মামলা নিতে দেরি,ওসিকে আদালতের শোকজ
[ভালুকা ডট কম : ১২ মে]
নওগাঁয় বদলগাছীতে আদালতের আদেশের পরও মামলা রুজু করতে দেরি করায় বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আতিকুল ইসলামকে কারণ দর্শানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার (১১ মে) নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম এই আদেশ দেন।

নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বেঞ্চ সহকারী রেজাউল করিম বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বলেন,গত ১০ এপ্রিল মো. নূরুল ইসলাম নামে একজন বাদী নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মো. ফারুকসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে নালিশী দরখাস্ত করেন। পরে নালিশী আবেদনটি এজাহার হিসেবে রুজু করার নির্দেশ দেন নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম। নালিশী দরখাস্তটি আদেশ পাওয়ার ২৪ঘণ্টার মধ্যে এজাহার হিসেবে গণ্য করে মামলা দায়ের করতে নির্দেশ দেন আদালত।

তিনি আরো বলেন,বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ আদালতের আদেশ পাওয়ার ১২ দিন পর মামলা দায়ের করেন। সে কারণে পুলিশ আইনের ২৯ ধারার অভিযোগ আমলে নিয়ে কেন তাকে শাস্তি প্রদান করা হবে না জানতে চেয়ে আগামী ২২ মে সংশ্লিষ্ট আদালতে সশরীরে হাজির হয়ে কারণ দর্শানোর আদেশ দেন আদালত।

বিষয়টি আদালতের বৈধ আদেশ লঙ্ঘন এবং আদালত অবমাননার শামিল হিসেবে গণ্য করেছেন আদালত। আদেশে আদালত বলেন, আদালতের বৈধ আদেশ ইচ্ছাকৃতভাবে অমান্য করে ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। সে কারণে পুলিশ আইনের ২৯ ধারার অভিযোগ আমলে নিয়ে কেন তাকে শাস্তি প্রদান করা হবে না জানতে চেয়ে আগামী ২২ মে সংশ্লিষ্ট আদালতে সশরীরে হাজির হয়ে কারণ দর্শানোর আদেশ দেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত ১০ এপ্রিল নূরুল ইসলাম বাদী হয়ে ফারুকসহ ৬জনের বিরুদ্ধে আদালতে নালিশী দরখাস্ত করেন। জখমীদের পরীক্ষা করে ওই দিনই ফৌজদারি ১৫৬(৩) ধারার বিধানমতে নালিশী দরখাস্তটি পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এজাহার হিসেবে গণ্য করে মামলা ররুজু করতে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। আদালত হতে ১১ এপ্রিল আদেশটি পাঠানো হয় নেজারত শাখায়। পরে নেজারত শাখা আদেশটি ২১ এপ্রিল পোস্ট অফিসের মাধ্যমে ২৬ এপ্রিল বদলগাছী থানায় পাঠানো হয় এবং সেখানে সেলিম নামের পুলিশ সদস্য স্বাক্ষর করে আদেশের চিঠিটি গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে ৮ মে নালিশী দরখাস্তটি মামলা হিসেবে থানায় রুজু করেন বদলগাছি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলাম।

এ ব্যাপারে বদলগাছী থানার ইনচার্জ মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করতে দেরি করার কারণ দর্শানোর জবাব দেওয়া হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ২৭৩৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই