তারিখ : ১৪ জুন ২০২৪, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ

ভালুকায় এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যাহারের অভিযোগ
[ভালুকা ডট কম : ২০ সেপ্টেম্বর]
ভালুকায়  ক্ষমতার অপব্যাবহারের অভিযোগ উঠেছে ঢাকার উত্তরায় কর্মরত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। ক্ষমতার অপব্যাহার করে ইমারত(বাড়ী) নির্মানে নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে  ঘরে তুলেছেন বিলাশবহুল আলিশান বাড়ী, পুকুর,আবাদী ও  অনাবাদী জমি।

অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, উপজেলার কাচিনা ইউনিয়ন শাখার জিয়া পরিষদ এর সাবেক সহ সভাপতি  কাদিগড় গ্রামের মৃত আঃ খালেক এর ছোট ছেলে  ঢাকার উত্তরায় কর্মরত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এস.আই সালেহ ইমরান এর পিতা প্রায় ১০ বছর পূর্বে মাত্র কয়েক শতক জমি রেখে সড়ক দূর্ঘটনায় মারা যান। ক্ষমতার অপব্যাহার করে ইমারত(বাড়ী) নির্মানে নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে  ঘরে তুলেছেন বিলাশবহুল আলিশান বাড়ী, পুকুর,আবাদী ও  অনাবাদী জমি।

এছাড়া গ্রামে  ইমারত (বাড়ী) নির্মান করতে চাইলে সরকার নির্ধারিত কতৃপক্ষের ছারপত্র বা অনুমোদন নিতে হয় ।এটি লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ ৫ বছরের সশ্্রম কারাদন্ড এবং সর্বোচ্চ ৫০লাখ টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

কাদিগড় গ্রামের  এক যুবক  আল-আমিন জানান, ২০১৪ সালে পুলিশে যোগদানের পর অল্প কয়েক বছরে  বিলাশ বহুল আলিশান বাড়ী, পুকুর,আবাদী ও  অনাবাদী  প্রায় ৪ একর জমির মালিক এস.আই সালেহ ইমরান । তিনি এলাকায় এসে ক্ষমতার অপব্যবহার করে  ছাইফুল ইসলাম ও তার মেয়ের জামাই ঠিকাদার রমিজ খানসহ অনেকের নামে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ বিভিন্ন দফতরে  মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানী করে আসছে।

এস.আই সালেহ ইমরান এর সহপাঠী শাহাম তালুকদার জানান, আমার সাথে ২০০১ সালে বাটাজোর বি এম উচ্চ বিদ্যালয় পরিক্ষা কেন্দ্রে অসদ উপায় অবলম্বল (নকলের) দায়ে সালেহ ইমরান ২ বছরে জন্য বহিস্কার হন।

এস.আই সালেহ ইমরান বলেন,  আমার প্রায় ৪ একর জমি রয়েছে  আমি ক্ষমতার কোন অপব্যাহার করিনাই । ইমারত (বাড়ী )নির্মাণের আইন আমার জানা নেই । আপনি আইনটা বলেন বলেই ফোনটা কেটে দেন।

উপজেলার ৯নম্বর কাচিনা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান লিটন জানান,বিল্ডিং কোড নিয়ম অনুযায়ী পরিষদ থেকে বাড়ী করার অনুমোদন নেয়া লাগে কিন্তু সালেহ ইমরান নিয়ম না মেনে বাড়ী করাই তাকে নোটিশ করা হবে।

উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমান জানান,আমাদের অফিস থেকে কাদিগর গ্রামে ইমারত(বাড়ী) নির্মাণের জন্য  সালেহ ইমরান কোন প্রকার অনুমোদন নেননি বা আবেদনও করেননি। আমি তার বিরুদ্ধে চিঠি দিয়ে জবাব চাইব।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯৩৯০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই