তারিখ : ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গফরগাঁওয়ে জিআরপি পুলিশের মিথ্যা মামলা,পত্রিকা সরবরাহ বন্ধ

গফরগাঁওয়ে সংবাদপত্র এজেন্ট ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে জিআরপি পুলিশের মিথ্যা মামলা,পত্রিকা সরবরাহ বন্ধ
[ভালুকা ডট কম : ১০ জুন]
ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় সংবাদপত্র এজেন্ট,পত্রিকা বিক্রেতা ও স্থানীয় সাংবাদিককের আসামি করে রেলওয়ে পুলিশ একটি মামলা করেছে।মামলায় সংবাদত্র এজেন্ট রোকন উদ্দিন সবুর,গফরগাঁও প্রেসক্লাবর সাবেক সাভাপতি দৈনিক ইত্তেফাক সংবাদদাতা আতাউর রহমান মিন্ট ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি তফাজ্জল হোসেনসহ ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১৫০জনকেআসামি করা হয়েছে।

পুলিশের হয়রানির ভয়ে পত্রিকা দোকান বন্ধ থাকায় শনিবার গফরগাঁওসর্বত্র পত্রিকা সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। গফরগাঁও রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (এসআই) মো. শফিকুল ইসলাম খান বাদী হয়ে গত শুক্রবার রাতে ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানায মামলাটি করেন।

সংবাদপত্র এজেন্ট,পত্রিকা বিক্রেতাতের অভিযোগ, গত বুধবার বিকালে গফরগাঁও রেলওয় স্টেশনে অবস্থিত বুকস্টল ও সংবাদপত্র এজেন্টের মালিক রুকন উদ্দিন সবুরকে দোকান থেকে ধরে নিয়ে দুই দফা মারধর করে পুলিশ।পরে উত্তেজিত সংবাদপত্র বিক্রেতা ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা রেলওয়ে থানায় গিয়ে পুলিশ সদস্য রঞ্জু মিয়াকে মারধর করে।বুধবার বিকালে তোফায়েল নামের একজন  রেলওয়ে পুলিশ সদস্য বুকস্টল থেকে বিনা টাকায সংবাদপত্র নিতে চাইলে সত্বাধিকারি রুকন উদ্দিন বিনা টাকায় সংবাদ পত্র দিতে অস্বীকৃতি জানালে তোফায়েল রুকন উদ্দিনকে মারধর করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। পরবর্তীতে রুকন উদ্দিনকে ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে আবারও মারধর করা হয়।রুকন উদ্দিনকে দুইদফা মারধরের খবর পেয়ে উত্তেজিত সংবাদপত্র বিক্রেতা এবং স্থানীয় বাসিন্দা রেলওয়ে স্টেশনে অবস্থিত পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা করে।হামলাকারীরা পুলিশ কনস্টেবল রঞ্জু মিয়াকে মারধর করে।তোফায়েল রুকন উদ্দিনকে মারধর করলেও তাঁর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন রুকন উদ্দিন ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা।গফরগাঁওয়ের সংবাদপত্র এজেন্ট রুকন উদ্দিন সবুরের উপর পুলিশের হামলার ঘটনায় সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে মিথ্যা মামলার শিকার হয়েছেন দৈনিক ইত্তেফাক সংবাদদাতা আতাউর রহমান মিন্ট ও দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি তফাজ্জল হোসেন।সম্প্রতি গফরগাঁও রেলওয়ে স্টেশনে প্রকাশে টিকিট কালোবাজারি হয়,চলন্ত ট্রেনের ছাদে ছিনতাইকরীদের দেীরাত্ন্য বৃদ্ধি নিয়ে যুগান্তর পত্রিকায় একাধিক সংবাদ প্রকাশ করায় হয়।পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের রেলওয়ে পুলিশ ক্ষিপ্ হয়ে সংবাদপত্র এজেন্ট রুকন উদ্দিন সবুরের সাথে সাংবাদিকদের মিথ্যা মামলায় আসারিম করা হয়।

রুকন উদ্দিন সবুর বলেন, গত বুধবার বিকালে পুলিশ কনস্টেবল তোফায়েল আমার দোকানে গিয়ে হুমকি দিয়ে বলেছেন,রেলওয়ে স্টেশনে ব্যবসা করতে হলে ফাঁড়িতে ‘ফ্রি’ পত্রিকা দিতে হবে। আমি রাজি না হওয়ায় তিনি আমাকে দোকানেই মারধর করেন। পরে ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে আবারও মারধর করে। পরে আমি গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হই।আমাকে মারধরের খবর পেয়ে উত্তেজিত এলাকাবাসী ও কয়েকজন সংবাদপত্র বিক্রেতা থানায় হামলা করেছে। পুলিশ আমাকে, আমার দোকানের ম্যানেজার ও কয়েকজন হকারকে আসামি করেছে।এতে দোকানটিও বন্ধ রাখতে হচ্ছে।ফলে গফরগাঁওয়ে পত্রিকা বিক্রি বন্ধ রয়েছে।ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল মান্নান ফরাজী বলেন, সংবাদপত্রের এজেন্টকে মারধর করার অভিযোগটির তদন্ত চলছে। #






সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

মিডিয়া বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ২০৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই