তারিখ : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

দেশটা একটা পুলিশী রাষ্ট্রে পরিনত হচ্ছে-নজরুল

দেশটা একটা পুলিশী রাষ্ট্রে পরিনত হচ্ছে-নজরুল
[ভালুকা ডট কম : ২৩ জুলাই]
দেশের বিশিষ্ট সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে বিচারক জামিন দেয়ার পর সরকারদলীয় নেতাকর্মীরা কুষ্টিয়া আদালত প্রাঙ্গণে ‘ঘেরাও’ করে রাখে দীর্ঘসময়, তারপর যখন তিনি আদালত প্রাঙ্গন ত্যাগ করতে গাড়িতে উঠেন তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা, রক্তাক্ত করা এবং সেই সময় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা প্রকাশ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম খান বলেন, দেশটা একটি পুলিশী রাষ্ট্রে পরিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের আইন-শৃঙখলা রক্ষাকারীর বাহিনীর উপস্থিতিতে আদালত প্রাঙ্গনে মাহমুদুর রহমানের উপর হামলা দেশের বিচার বিভাগকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। এভাবে কোন সভ্য রাষ্ট্র চলতে পারে না। পরিবর্তন এখন সময়ের দাবীতে পরিনত হচ্ছে। সোমবার গুলশানস্থ এক রেস্তোরায় রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনী প্রচারনা ২০ দলের সমন্বয় কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ৩০ জুলাই সিটি নির্বাচনে কারচুপি করার চেষ্টা করলে জনগণ এর দাঁতভাঙা জবাব দেবে। প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে খুলনা-গাজীপুরসহ প্রায় সব নির্বাচনে সরকার দলীয় ক্যাডারদের মাধ্যমে জনগণের রায় প্রয়োগ করতে দেয়নি। এভাবে কোনো সভ্য রাষ্ট্র চলতে পারে না।’ আগামী ৩সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট ডাকাতদের রুখে দিয়ে বাংলার জনগণের কাছে তাদের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে জনগনকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সরকার একের পর এক প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের মানুষের মধ্যে শংকা তৈরি করে রেখেছে, দেশের সাধারণ মানুষ এখন ভোটকেন্দ্রে যেতে ভয় পায়। তাই ৩০ জুলাই একটি স্বচ্ছ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের সাধারণ জনগণের নির্বাচন নিয়ে আতঙ্ক কাটাতে হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের ব্যত্যয় হলে জনগণের কাঠগড়ায় সব নির্বাচন কমিশনারকে দাঁড়াতে হবে।

সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা'র সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব ও জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, বিজেপি চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার আন্দালিভ রহমান পার্থ, এলডিপি মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি, বিএমএল সভাপতি এ.এইচ.এম কামরুজ্জামান খান, এলডিপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, ডিএল সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, বেজেপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মতিন সাউদ, পিপলস লীগ মহাসচিব এডভোকেট সৈয়দ মাহবুব হোসেন, লেবার পার্টি (একাংশ) মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী, ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদ খান, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মুফতী গোলাম মুহিউদ্দিন ইকরাম, খেলাফত মজলিশ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আহমেদ আলী কাসেমী, এনডিপি যুগ্ম মহাসচিব রাজু আহমেদ প্রমুখ। #



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৪৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই