তারিখ : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকা থেকে ফেনীর রাফি হত্যার আসামী নূর গ্রেপ্তার

ভালুকা থেকে ফেনীর রাফি হত্যার অন্যতম আসামী নূর উদ্দিন গ্রেপ্তার
[ভালুকা ডট কম : ১২ এপ্রিল]
ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বহু অপকর্মের স্বাক্ষী নুর উদ্দিন কে ভালুকা উপজেলা থেকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গ্রেপ্তার করেছে। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের আমতলী এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে। নরু উদ্দিন ওই দুটি মামলার দুই ও তিন নং আসামি।

প্রত্যক্ষদর্শী  শফিকুল ইসলাম জানান,সকাল সোয়া ৯টার দিকে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন করে আমাকে সিডস্টোর আ’লীগের অফিসে আসতে বলেন। পরে আমি সেখানে গিয়ে তাদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলি। কথা বলার এক পর্যায়ে তারা আমার প্রতিবেশি আকবর নামের এক লোকের ব্যাপারে জানতে চান। আমি তখন তাদের কে বলি আকবর সীডস্টোরের আমতলী এলাকার আব্দুল মজিদের কাছ থেকে চার বছর আগে জমি কিনে টিন সেটের একটি বাড়ি করেছেন। পরে অপরিচিত নম্বর ধারীরা আমার মাধ্যমে আকবরকে ফোন করিয়ে আ’লীগ অফিসে নিয়ে আসে। পরে তারা আকবর ও আমাকে নিয়ে আমতলীতে আকবরের বাসায় অভিযান চালিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় নুরু উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। পরে গ্রেপ্তারকারীরা নিজেদেরকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পুলিশের পরিচয় দেন। পরে নুরু উদ্দিন কে নিয়ে পুলিশ দুটি সাদা রঙের হায়েছ গাড়িতে করে ঢাকার পিবিআই অফিসে নিয়ে যায়।

শ্রমিক নেতা শফিকুল আরও জানান, আকবরের বাড়ি ফেনী জেলায়। আকবরের মামানী আমতলী এলাকায় বাসাভাড়া থেকে একটি পোষাক কারখানায় চাকুরি করেন। তার মামানির বাড়ি ও নুর উদ্দিনের একই এলাকায়। সেই সূত্রে ধরে গত রাতের কোন এক সময় নুরু উদ্দিন আকবরের বাসায় আশ্রয় নেন। নুরু উদ্দিন এর আগে ঢাকার খিলক্ষেত এলাকায় অবস্থান করে। সেখানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ভয়ে ভালুকা আমতলীতে আশ্রয় নেয়। (পিবিআই) পুলিশ বৃহস্পতিবার রাত ৩টা থেকে সিডস্টোর এলাকায় অবস্থান করছিল।

নুরু উদ্দিন ‘সিরাজ উদ্দৌলা সাহেব মুক্তি পরিষদ’ আহবায়ক সে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ফাজিলের ছাত্র। তার বাড়ি সোনাগাজী পৌরসভার উত্তরচর চান্দিয়া এলাকার বাসিন্দা। সে অধ্যক্ষ অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার ঘনিষ্ঠ,পরিচিত ও বহু অপকর্মের স্বাক্ষী।

ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার শাহ আবদিন হোসেন নূর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,নুর উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পিবিআইয়ের ঢাকা কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গ.গত ৬ এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় আলিম পরীক্ষার কেন্দ্র্রে মাদ্রাসার ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে পালিয়ে যায় মুখোশধারীরা। ২৭ মার্চ মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলা তার কক্ষে ডেকে নিয়ে নুসরাতের শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ বিষয়ে স্বজনদের দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের চাপ দিয়েও প্রত্যাখ্যাত হওয়ায় নুসরাতকে আগুনে পোড়ানো হয়।আগুনে ঝলসে যাওয়া নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল রাতে মারা যায়।

নুসরাতের শ্লীলতাহানির মামলায় ২৭মার্চ অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলা গ্রেফতার হলে তাঁর মুক্তির দাবিতে ‘ সিরাজ উদ্দৌলা সাহেব মুক্তি পরিষদ’ নামে একটি কমিটি গঠন করে। এ কমিটির আহ্বায়ক হন নূর উদ্দিন এবং যুগ্ম-আহ্বায়ক হন শাহাদাত। তাদের নেতৃত্বেই সিরাজ উদ্দৌলার মুক্তির দাবিতে ২৮ ও ৩০ মার্চ উপজেলা সদরে দুই দফা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি হয়।

ঘটনার প্রথম থেকেই সিরাজ উদ্দৌলার ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত নূর উদ্দিনকে প্রধান সন্দেহভাজনদের একজন মনে করছেন স্থানীয়রা। তাদের ভাষ্যে, নুসরাতকে আগুনে ঝলসে দেওয়ার ঘটনার আগের দিন ৫ এপ্রিল রাতে এবং ঘটনার দিন ৬ এপ্রিল সকালেও নুর উদ্দিনকে মাদ্রাসার মূল ফটকে দেখা গেছে। তার সঙ্গে ছিলেন শাহাদাত হোসেন ওরফে শামীম নামে আরও একজন। এ দু’জনই মামলার দ্বিতীয় ও তৃতীয় নম্বর আসামি।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৮ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই