তারিখ : ১৫ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকা ডট কম এর মুখোমুখি পৌরপিতা ডা.কাইয়ুম

ভালুকা ডট কম এর মুখোমুখি পৌরপিতা ডা.কাইয়ুম
[ভালুকা ডট কম : ২২ মার্চ]
ভালুকা পৌরসভার ভিবিন্ন সমস্যা ও নাগরিক সুবিধা নিয়ে কথা বলতে ভালুকা ডট কম এর মুখোমুখি হন বর্তমান মেয়র ডা.একেএম মেজবাহ উদ্দিন কাইয়ুম,তিনি জানান ভালুকা উপজেলার ভালুকা পৌরসভাটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৯৮সালে। ২০১২সালে এটি প্রথম শ্রেনীতে উন্নীত হয়। বর্তমানে এ পৌরসভায় ২লাখ লোকজনের বসবাস রয়েছে। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে এ পৌরসভা গঠিত এখানে মোট ভোটার রয়েছে ২৭হাজার।

তিনি বলেন,১৯৭৭সালে আনন্দ মোহন কলেজে পড়াশোনা করার সময় ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হই। পরে ১৯৮০-৮৬সালে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় ছাত্র  কল্যান পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ছিলাম।বর্তমানে ভালুকা উপজেলা আ’লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পদক। গত ২০১৫সালের ৩১জানুয়ারী দ্বিতীয় মেয়াদে পৌর মেয়র নির্বাচিত হই।

ডা.একেএম মেজবাহ উদ্দিন কাইয়ুম বলেন,২০১২সালে ভালুকা পৌরসভাটি প্রথম শ্রেনীতে উন্নীত হয়। প্রথম শ্রেনীর পৌরসভা হিসাবে জনগণ মোটামোটি সব ধরণে সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন। সরকারী বরাদ্দ পর্যপ্ত পরিমাণ না থাকায় ইচ্ছেমত পৌর উন্নয়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের জনগণ শতভাগ বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছেন। প্রত্যেক ওয়ার্ডে সড়ক বাতির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা যথেষ্ট ভাল রয়েছে। ভালুকা বাজারের অপ্রশস্থ রাস্তা প্রশস্থকরন ও মাছ বাজারে ঢালাই দিয়ে রাস্তা করা হয়েছে। ময়না আবর্জনা ফেলার জন্য নিজস্ব জায়গায় না থাকায় ঢাকা ময়মনসিংহ মহা সড়কের পাশে ভান্ডাব এলাকায় ফেলা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন,বর্তমানে ভালুকা পৌরসভার সব চেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে ভূমি সংকট। ভালুকা পৌর সদরে যথেষ্ট পরিমাণ খাস জমি না থাকায় ও জমির মূল্য অধিক থাকায় পৌরসভার নিজস্ব অর্থায়নে জমি ক্রয় করা যাচ্ছে না। ফলে খেলার মাঠ,কমিউনিটি সেন্টার, বিনোদনের জন্য অডিটরিয়াম,শিশু পার্ক,পৌর মার্কেট,নিজস্ব শপিং সেন্টার,বাস ও ট্রাক স্ট্যান্ড করা যাচ্ছে না। পৌরসভার নিজস্ব বাস স্ট্যান্ড না থাকায় বিভিন্ন পরিবহণের যাত্রীদের প্রতিদিনই ভোগান্তি পড়তে হচ্ছে।

মেয়র জানান, ভালুকা মডেল থানা বিপরিত দিকে সড়ক ও জনপথের ২একর জমি ৯৯বছরের জন্য লিজ নেয়ার সব ধরণের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে সড়ক জনপথকে  ২কোটি ৭০লাখ টাকা দিতে হয়। কিন্তু বর্তমানে পৌরসভার নিজস্ব ফান্ড না থাকায় ওই টাকা জমা দিতে পাচ্ছি না। ওই জমিটির ব্যবস্থা হয়ে গেলে ট্রাক স্ট্যান্ডের সমাধান হয়ে যাবে। প্রকৃত পক্ষে ভালুকা সদরে পরিবহণের কোনো স্ট্যান্ড করার মতো জমিই নেই।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

সাক্ষাৎকার বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই