তারিখ : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইল-হোসেনপুর সড়ক যেন মরণফাঁদ

নান্দাইল-হোসেনপুর সড়ক যেন মরণফাঁদ
[ভালুকা ডট কম : ০৩ জুন]
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় নান্দাইল-হোসেনপুর সড়ক নির্মাণের ৪ বছর যেতে না যেতেই সড়কটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। এতে নান্দাইল, হোসেনপুর ও পাকুন্দিয়া এই তিন উপজেলার বেশির ভাগ মানুষদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নান্দাইল-হোসেনপুর সড়ক হয়ে ঢাকায় যাতায়াত করার সহজতম সড়ক হচ্ছে এটি। গুরুত্বপূর্ণ কাজকর্ম নিয়ে ঢাকায় গিয়ে অনেকেই দিনের মধ্যে চলে আসে। এই সড়ক দিয়ে জলসিঁড়ি,বন্যা ও অনন্যা নামে তিনটি পরিবহনের বিলাসবহুল বাস চলাচল করে।

সরজমিন দেখা যায়, গর্তে ভরা সড়কে চলতে গিয়ে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যাত্রীসাধারনের। বৃষ্টি হলেই সড়কজুড়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। যানবাহন উল্টে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। উপজেলার আচারগাঁও ইউনিয়নের জামতলা ও সিংরুইল ইউনিয়নের শিয়ালধরা বাজার এলাকায় সড়কটির বেশ কয়েকটি স্থানে ছয় মাস আগে কার্পেটিং ও পাথর-খোয়া উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি কয়েক দিনের প্রবল বর্ষণে আরো বড় হয়েছে গর্তগুলো।

উপজেলা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ নান্দাইল-হোসেনপুর সড়কটি ২০১৩-১৪ অর্থবছরে প্রায় চার কোটি টাকা ব্যয়ে সর্বশেষ সংস্কার ও প্রশস্ত করা হয়। চার বছর পার না হতেই বিটুমিন ও কার্পেটিং উঠে গিয়ে আবার সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত।

নান্দাইল উপজেলা প্রকৌশলী আবুল খায়ের মিয়া জানান,নান্দাইল থেকে হোসেনপুর হয়ে ঢাকায় যাওয়ার সড়কটি স্থায়ীভাবে সংস্কারের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে। আশা করি, আগামী অর্থবছরে সেটি বাস্তবায়িত হবে। আর খানাখন্দ ভরাট করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

স্থানীয় সূত্র জানায়,সড়কটি সংস্কার ও প্রশস্ত করা হলে এর গুরুত্ব বেড়ে যাবে।নান্দাইল উপজেলার জামতলা এলাকার মো. তারা মিয়া বলেন, গাতা (গর্ত) অওনের পর থাইক্যা অনেকে আইয়া খালি ফটো তুলে, মাফজোক করে। কিন্তু সড়ক তো ঠিক অয় না। এলাকাবাসী জানায়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী সহ বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ এই সড়কে যাতায়াত কালে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। বিশেষ করে ইজিবাইক, সিএনজি উল্টে যাওয়ার ঘটনা যেন নিত্যসহচর। তাই গুরুত্বপুর্ণ এই সড়কটি নতুন ও দৃঢ়ভাবে সংস্কার করার দাবী জানান এলাকাবাসী।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই