তারিখ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সান্তাহারে আমন রোপণে ব্যাস্ত চাষীরা

সান্তাহারে আমন রোপণে ব্যাস্ত চাষীরা
[ভালুকা ডট কম : ২৯ জুলাই]
পশ্চিম বগুড়ার শস্য ভান্ডার বলে খ্যাত সান্তাহার তথা আদমদীঘি উপজেলা। চলতি আমন মৌসুমের প্রথমের দিকে বৃষ্টি না হওয়ায় আমন চাষ নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় পড়তে হয় কৃষকদের। কিন্তু ইতিমধ্যেই বৃষ্টি হওয়ায় আমন মৌসুমের ধান উৎপাদনের লক্ষ নিয়ে এই অঞ্চলের কৃষকরা মাঠের আবাদী জমিতে আমন ধানের চারা রোপনে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে।

সান্তাহার ও আদমদীঘিতে আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়। এই অঞ্চলের কৃষকরা বিপুল পরিমান ফসল উৎপাদন করে অত্রাঞ্চলের খাদ্য চাহিদা পূরন করে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে থাকে। চলতি আমন মৌসুমে আদমদীঘি উপজেলা কৃষি অফিস থেকে ১৩হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। প্রতি হেক্টর জমি থেকে ৪টন ধান উৎপাদনের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে বলে কৃষি বিভাগ জানিয়েছে। এই জমিতে আমন চাষ করার জন্য ৭শ ৫হেক্টর বীজতলায় চারা ফেলানো হয়েছে।

মৌসুমের শুরু থেকে প্রথর রোদ হলেও এ বছর বীজতলায় চারা নষ্ট হওয়ার সংবাদ পাওয়া যায়নি। এলাকার কৃষকগন জানিয়েছে, বর্তমানে আদমদীঘি উপজেলার বিভিন্ন্ মাঠে আমন ধান লাগানো শুরু হয়েছে চারা সংকটের কোন সম্ভাবনা নাই। এ বছর অনেক কৃষক তাদের লক্ষ্য মাত্রা অনুযায়ী জমি রোপন করতে চারা সংকট হবেনা বলে এলাকার কৃষক শফির,আফছার,আতিক,সাগর জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ কামরুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বৃষ্টির কারনে রোপন একটু পিছিয়ে গেছে। কৃষি অফিস থেকে কৃষকদেরকে বীজতলায় চারা তৈরী করার ব্যাপারে ভাল পরামর্শ দেওয়া হয়েছে যার কারনে চারাও ভাল হয়েছে ফলে সুন্দর ভাবে কৃষকরা আমন ধান রোপন করতে পারবে।#






সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

কৃষি/শিল্প বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই