তারিখ : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় আমন ক্ষেতে ইদুঁরের আক্রমন কৃষকের মাথায় হাত

ভালুকায় আমন ক্ষেতে ইদুঁরের আক্রমন কৃষকের মাথায় হাত
[ভালুকা ডট কম : ১০ অক্টোবর]
ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে পাতামোড়া, মাইজকাটা পোকা ও ইদুঁরের আক্রমনে আমন ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হচ্ছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন।

৮ অক্টোবর মঙ্গলবার সরজমিন চাপরবাড়ী গ্রামে গেলে কৃষক সবুজ মিয়া জানান তিনি ও তার ভাইয়েরা মিলে ৪ একর জমিতে আমন ধানের আবাদ করেছেন। তাদের আমন ক্ষেতে ইদুরের ব্যাপক আক্রমন দেখা দিয়েছে। ক্ষেত থেকে ইদুরে কাটা ধান তুলে এনে বললেন থোর হওয়ার আগ মুহূর্তে ক্ষেতের মাঝখানের ধানের গোড়া কেটে রস চুষে খায়।তারা বাঁশের চোঙ্গা কল ও নেট কল দিয়ে নিজস্ব পদ্ধতিতে ইঁদুর মারার চেষ্টা করছেন। ইদুঁরের আক্রমন কোন ভাবেই প্রতিহত করতে পারছেননা। তিনি ১০০ টাকা করে ৭/৮ টি ইদুঁর মারার কল ও চোঙ্গা কল ক্ষেতে স্থাপন করেছেন।

একই গ্রামের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কৃষাণী জানান তাদের ১৮ কাঠা জমির আমন ক্ষেত ইদুঁরে নষ্ট করছে। তাদের উভয়ের অভিযোগ এ ব্যাপারে কৃষি বিভাগের কোন লোকজন তাদেরকে পরামর্শ দিতে আসেননি।

ভান্ডাব গ্রামের সেলিম মিয়া জানান তার ১ একর জমিতে পাতামোড়া ও ইদুঁরের আক্রমন দেখা দেওয়ায় তিনি ওইদিন দুপুরে ক্ষেতে কীটনাশক স্প্রে করেছেন। একই গ্রামের সাংবাদিক শাহজাহান সেলিমের প্রায় ১ বিঘা, মফিজ উদ্দীনের ১ বিঘা, আফাজ উদ্দীনের ৩ বিঘা ও বুলবুলের ১ বিঘা সহ অন্যান্য কৃষকের আমন ক্ষেত ইদুঁর ও পোকায় নষ্ট করতেছে বলে তারা জানান। বুলবুল জানান তিনি দোকান থেকে ১০০ টাকার বিষটোপ এনে ক্ষেতে দিয়েছেন কিন্তু কোন প্রতিকার মিলেনি। তাদের ও একই কথা কৃষি কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে কোন পরামর্শ দেননি।

ভান্ডাব গ্রামের মকবুল হোসেন তার ক্ষেত থেকে ইদুঁরে কাটা ধান তুলে এনে বলেন ৫ কাঠা জমির মধ্যে যে ভাবে ইদুঁরের আক্রমন দেখা দিয়েছে তাতে ফসল অনেক কমে যাবে। এলাকার সর্বত্রই আমন ক্ষেতে কমবেশী ইদুঁরের আক্রমন রয়েছে বলে চাষিরা জানিয়েছে। উপজেলার কাচিনা, মল্লিকবাড়ী, ডাকাতিয়া, মেদুয়ারী, বিরুনিয়া, উথুরা, ধীতপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে এসব আক্রমন কমবেশী দেখা দিয়েছে।

বিরুনিয়া ইউনিয়নের বাওঁয়ার মোড় এলাকার কৃষক মৌফিজ উদ্দীন জানান তার ২১ কাঠা (৪ বিঘা ) জমিতে ব্যাপক আকারে ইদুঁরের আক্রমন ও মাঝে মধ্যে মাইজ কাটা পোকার আক্রমন দেখা দিয়েছে। প্রতিদিনই ইদুঁরে কাটা ধানের গোছা ক্ষেত হতে তুলে ফেলছেন। একই গ্রামের আবুল কালামের দেড় বিঘা, শাহজাহান মিয়ার ২ বিঘা,আবু বক্কর সিদ্দিকের ৩ বিঘা করিম ঢালীর ২ কাঠা, হেলাল মিয়ার ৪ কাঠা ও দুলাল মিয়ার ৪ কাঠা জমি ইদুঁর ও মাইজ কাটা পোকায় আক্রান্ত হয়েছে বলে তারা জানায়।

গোয়ারী চৈতারটেক গ্রামের জালাল পাঠান জানান তিনি সারে ৩ একর জমিতে আমন আবাদ করেছেন ইদুঁরে কেটে তার ধান নষ্ট করছে আবার কিছু কিছু মাইজকাটা পোকার আক্রমনও দেখা দিয়েছে। আশপাশের অনেকের জমিতে ইদুঁর ও পোকার আক্রমন লক্ষকরা গেছে। মাঝে মাঝে মাইজকাটা মরা শিষ সারা ক্ষেত জুরে দেখা যায়।

উপজেলার ডাকাতিয়ার আউলিয়ার চালা গ্রামে সোমবার সকালে পোকায় আক্রান্ত ধান ক্ষেতে কিটনাশক দিতে গিয়ে ক্ষেতে পড়ে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই ফয়েজ উদ্দিন (৬৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানাযায় এ মৌসুমে আমন আবাদের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে ২০ হাজার ৪৪০ হেক্টর, স্থানীয় জাত ২ হাজার ২৭৫ হেক্টর, উফসি ১৭ হাজার ৯৮০ হেক্টর ও হাইব্রীড ১৮৫ হেক্টর, উৎপাদন লক্ষমাত্রা ৫৫হাজার ৫৬৫ মেট্রিক টন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২১ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই