তারিখ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

ভালুকার করোনা আপডেট

২৯ জুলাই ২০২০, বুধবার
আক্রান্ত
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২৮০ জন
সুস্থ
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২১৯ জন
মৃত্যু
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৩ জন

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় কৃষকের কলা বাগান কর্তণ

ভালুকায় কৃষকের কলা বাগান কর্তণ
[ভালুকা ডট কম : ১৩ আগস্ট]
ভালুকার কাচিনা ইউনিয়নের কাদিগড় গনকা বাজার এলাকায় মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোস্তফা কামাল নামে এক কৃষকের কলা বাগান কেটে নষ্ট করেছে প্রতিপক্ষরা। এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার মোস্তফা কামাল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

১৩ আগষ্ট বৃহস্পতিবার বিকালে সরজমিন গনকা বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায় মোস্তফা কামালের বাগানে ছোট বড় অসংখ্য কলাগাছ গোড়া ও মাঝখান থেকে কেটে মাটিতে ফেলে রাখা হয়েছে। মোস্তফা কামালের মাতা রুপজান (৬০) জানান ৩০/৩৫ বছর আগে বিয়ের পর হতে তিনি ওই বাড়ীতে রয়েছেন। ১২ আগষ্ট বুধবার সকালে প্রায় এক কিলোমিটার দূর থেকে এসে কাদিগড় গ্রামের প্রভাবশালী রইছ উদ্দিন খান, শাহ আলম খান, ফজলুল হক খান সহ ৭/৮ জন সশস্ত্র লোক তার ছেলের বাগানে নির্বিচারে চারা সহ ছোট বড় অসংখ্য কলাগাছ কেটে নষ্ট করে। এতে তার ছেলে দরিদ্র কৃষক মোস্তফার কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

মোস্তফার দাবী ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় ১৮শ কলাগাছ কেটে নষ্ট করেছে। সে পরিবেশ উন্নয়ন সংস্থা আসপাডা হতে ৪০ হাজার টাকা লোন নিয়ে ও দিন মজুরী সহ বিভিন্ন ভাবে অর্থ সংগ্রহ করে কলা বাগানটি করেছেন। বাগানের গাছ গুলি কেটে ফেলায় তিনি এখন সর্বশান্ত হয়ে পরেছেন।

এ ব্যাপারে রইছ উদ্দিন খানের সাথে জানতে চাইলে তিনি জানান ওই জমি তাদের কাছ থেকে এক বছর মেয়াদে বর্গা নিয়ে তাদেরই রায়ত মোস্তফা কামাল কলা বাগান করেছেন। মেয়াদ শেষ হওয়া সত্বেও জমি খালি না করায় তারা (কপিছ) কলার চারাগুলি কেটে ফেলেছে বড় গাছ তারা কাটেনি।#




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই