তারিখ : ২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় বিএনপি নেতা কর্তৃক জমি আত্মসাত,মানব-বন্ধন

ভালুকায় বিএনপি নেতা বাচ্চু ভূয়া আইডি কার্ড ও কাগজ বানিয়ে জমি আত্মসাতের প্রতিবাদে মানব-বন্ধন
[ভালুকা ডট কম : ১৯ সেপ্টেম্বর]
ভালুকায় জেলা বিএনপি নেতা ফখর উদ্দিন আহাম্মেদ বাচ্চু কর্তৃক ভূয়া ভোটার আইডি কার্ড ও কাগজপত্র সৃজন করে নিরীহ কৃষকের জমি আত্মসাত,অবৈধ ভাবে ব্যাংক লোন করার প্রতিবাদে ও জমি ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে শনিবার(১৯সেপ্টেম্বর)সকালে ভূক্তভোগি ৪০ পরিবারের পক্ষ থেকে  উপজেলা পরিষদের সামনে এক মানব-বন্ধন করে।

মানব-বন্ধনে ভুক্তভোগিদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, শিখা আক্তার, আব্দুল বারেক, আবুল কালাম, শহিদ উল্লাহ প্রমুখ।বক্তরা বলেন,ভূয়া ভোটার আইডি কার্ড ও ভূয়া কাগজপত্র ব্যবহার করে বাশিল মৌজার আর ও আর ৩৪০,৩৩৯,৭৪ ও ৬০নং দাগের সাড়ে ৪একর জমি উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও জেলা বিএনপি‘র যুগ্ম আহবায়ক মো. ফখর উদ্দিন আহাম্মেদ বাচ্চু আমাদের পরিবারের বর্তমান বিআরএস রেকর্ডভূক্ত জালিয়াতি ও কৌশলে নিজ নামে লিখিয়ে নেন। সেই জমি তিনি নাম জারি করে বন্ধক দিয়ে মোটা অংকের টাকা ব্যাংক ঋণ করেন।

মানব বন্ধনে তারা আরও বলেন,ভালুকা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখকের সহযোগীতায় তৎকালীন সাব-রেজিস্ট্রার জাহাঙ্গীর আলমকে ম্যানেজ করে বাশিল এলাকার বাসিন্দা মৃত রিয়াজত আলী সেখের ছেলে  আব্দুর রশিদকে আব্দুল খালেক বানিয়ে ভূয়া ভোটার আইডি কার্ড বানিয়ে ১১৫৯ ও ৬৫২৯ নম্বর দলিলের আমমোক্তা নামা দলিল করান আব্দুল খালেকের মেয়ে সালমা আক্তারের নামে। পরে ২৪২১,২৪২২ ও ৬৬৫৯ দলিল মূলে সালমা আক্তারের কাছ থেকে ফখর উদ্দিন আহাম্মেদ বাচ্চু ওই জমি নিজ নামে দলিল করে নেন। এসব জমির মাঝে সরকারী রাস্তা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও জামে মসজিদের জমিও রয়েছে।

এ ছাড়াও আরওআর খতিয়ান নং ৯৮এর জমির মালিক ইছমত আলীর মোট ১৩টি দাগে ৪একর সাড়ে সত্তোর শতাংশ জমি জনৈক আফাজ উদ্দিন সাফকবলা দলিল  করেন। ইসমত আলী জীবদশায় ওই মৌজার ১৯৮ ও ১৮৯ নম্বর খতিয়ানে সাবেক ৮৫, ৮৮, ১৮৪, ২৬৯ নম্বর দাগে সমুদয় জমি বিক্রি করে মারাযান। ২০১৮সালে বিএনপি নেতা ফখর উদ্দিন আহাম্মেদ বাচ্চু ইসমত আলীর ছেলে শহিদুল্লাহ ও সাহেদুল্লাহর কাছ থেকে ৩একর,৪১শতাংশ জমি ক্রয় করেন। বাচ্চুর ক্রয় কৃত জমি পুরোটাই আফাজ উদ্দিন,আমীর আলী শেখ ও বারেক গং এর নামে বর্তমান বিআরএস রেকর্ড হয়েছে।

ফখর উদ্দিন আহাম্মেদ বাচ্চু বলেন, যারা মানব-বন্ধন করেছেন তাদের কোনো দলিল তল্লাশি দিয়ে খোঁজে পাওয়া যায় না। তাদের কোনো সঠিক কাগজ পত্র নেই। আমি ওই জমি কোনো জালিয়াতির করে জমি ক্রয় করিনি।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই